সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

ক্যান্সার প্রতিরোধে অভাবনীয় সাফল্য (Good News From Cancer Research Foundation)

মারনব্যাধি ক্যান্সার, এটা সকলের জানা। কিন্তু সম্প্রতি ওশ স্টেট মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি, মস্কোর বিশেষজ্ঞ ডাক্তার গুপ্ত প্রসাদ রেড্ডি’র বর্তমান বক্তব্য থেকে জানা যাচ্ছে ক্যান্সার কোনও মারনব্যাধি নয়। মানুষ ইচ্ছা করলেই কোনও কেমোথেরাপি বা মেডিসিন ব্যবহার না করেই ক্যান্সার নির্মূল করতে পারবেন। কেমোথেরাপি একটা দীর্ঘ এবং যন্ত্রণাদায়ক পদ্ধতি। পাশাপাশি ক্যান্সারের যে ওষুধ বাজারে পাওয়া যায় সেগুলো বেশীরভাগই বেশ দামী, সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। তাঁর মতে মানুষ ক্যান্সার আক্রান্ত হবার পর  মারা যান কেবলমাত্র উদাসীনতার জন্য।(Good News From Cancer Research Foundation)

Osh State Medical University
ওশ স্টেট মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি

বেশ কয়েক বছর এই বিষয়ে গবেষণা করার পর তিনি জানিয়েছেন মাত্র দুটি পদ্ধতি বা উপায় অনুসরণ করেই ক্যান্সার নির্মূল করা সম্ভব। উপায়’গুলি হল,(Good News From Cancer Research Foundation)

  •  শরীরে জমে থাকা সুগার বা চিনি ক্যান্সারের কোষগুলি বেড়ে ওঠার মূল কারন।সুতরাং ক্যান্সার নির্মূল করতে হলে প্রথমেই সব ধরনের সুগার বা চিনি খাওয়া বর্জন করতে হবে। এর ফলে শরীরে চিনি না পেয়ে ক্যান্সারের কোষগুলি প্রাকৃতিকভাবে নষ্ট হয়ে যাবে।
  •  দ্বিতীয় উপায় হিসেবে ডাক্তার রেড্ডি জানিয়েছেন, এক গ্লাস গরম জলে প্রতিদিন খালিপেটে একটা লেবুররস মিশিয়ে খেতে হবে।এভাবে নিয়মিত তিন মাস সকালে খাবার আগে খালি পেটে এই লেবুর রস সহ গরম জল পান করলে শরীর থেকে উধাও হয়ে যাবে ক্যান্সার।

মেরিল্যান্ড কলেজ অফ মেডিসিন-এর একটি গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, সকালে খালিপেটে এই ভাবে লেবুররস মিশিয়ে গরম জল পান করা কেমোথেরাপির থেকে হাজারগুণ বেশি উপকারী।

এছাড়া প্রতিদিন সকালে ও রাতে তিন চা চামচ করে অরগ্যানিক  বা খাঁটি ঘানির নারকেল তেল খেলে ক্যান্সার সারতে বাধ্য। চিনি বর্জন করার পর এই দুটি পদ্ধতির যেকোনো একটি অনুসরণ করে শরীর থেকে ক্যান্সার নির্মূল করা  সম্ভব। তবে পাশাপাশি একটা কথা সবসময় মাথায় রাখতে হবে, অবহেলা বা উদাসিন্য কোনোটাই করা চলবে না।

 

উল্লেখ্য, ডাক্তার রেড্ডি গত ৫-৬ বছর ধরে সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে ক্যান্সার সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করার কাজটা করে যাচ্ছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন “আমি আমার কাজটা  করে যাচ্ছি, আপনারাও আরও বেশী মানুষকে ভালোভাবে সচেতন করার কাজটা করে যান। এই পদ্ধতিদুটো  শেয়ার করে যতো বেশী মানুষকে জানানো যাবে ততোই  মঙ্গল।”

মন্তব্য
Loading...