মিষ্টি আলুকে বলা হয় “ঘুমের মাসি”- কারন জানলে অবাক হবেন

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ ছোটবেলার কথা মনে আছে ! রাতে ঘুম না এলে “ঘুম পাড়ানি মাসি-পিসি”র গান গেয়ে মা-কাকিমারা ঘুম পাড়িয়ে দিত । কিন্তু আমাদের জীবনে যত আধুনিকতার ছোঁয়া লাগছে ততই যেন দু চোখের পাতা থেকে ঘুম হারিয়ে যাচ্ছে । আর অনিদ্রা ডেকে নিয়ে আসছে ক্লান্তিভাব, কাজে অনীহাসহ হরেক রকমের সমস্যা । কিন্তু মিষ্টি আলু আপনার এই সমস্যার সমাধান করতে পারে । আর সেই কারনেই মিষ্টি আলুকে বলা হয় “ঘুমের মাসি” ।

অনেক কারনেই আমাদের রাতে ঘুম আসে না । অনিয়মিত খাদ্য খাওয়া, নিয়মিত শরীর চর্চার অভাব, অতিরিক্ত টেনশন ছাড়াও যে প্রধান উপাদান আমাদের রাতে ঘুম পাড়াতে দরকার সেটি হল মেলাটোনিন ও কর্টিসল হরমোন, যা আমাদের শরীরের অভ্যন্তর থেকেই নিঃসরণ হয় । এছাড়াও পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ট্রিপটোফ্যান, ভিটামিন ডি প্রভৃতি রাতের ঘুমের সহায়ক ।

কেন মিষ্টি আলুকে “ঘুমের মাসি” বলে ?

পরীক্ষা করে দেখা গেছে মিষ্টি আলুতে থাকে  বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স, আয়রন এবং ফসফরাস, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম প্রভৃতি উপাদান থাকে । এর মধ্যে বিটা ক্যারোটিন আমাদের শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে হিসেবে কাজ করে। মিষ্টি আলুতে থাকা সুগার রক্তে ধীরগতিতে প্রবেশ করে দেহে শক্তি সঞ্চার করে। এ কারণে ক্রীড়াবিদ ও খেলোয়াড়দেরকে এবং যারা রক্তের নিম্নচাপে আক্রান্ত তাদেরকে মিষ্টি আলু খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।  আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি যে, মিষ্টি আলু ইনসুলিনের নিঃসরণ ঠিকমত হতে সাহায্য করে যা রক্তের চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। তাছাড়া মিষ্টি আলুতে অনেক ফাইবার বা আঁশ আছে, এর গ্লাইসিমিক ইনডেক্স ৫০, যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

মিষ্টি আলুতে থাকে পটাসিয়াম যা রাতের ঘুমের জন্য অতীব দরকারি উপাদান ।এছাড়া  বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন সি এবং ম্যাগনেসিয়ামের উপস্থিতির কারনে মিষ্টি আলু শরীরকে রিলাক্স পজিশনে নিয়ে আসে । অন্যদিকে  মিষ্টি আলুতে আঁশ বা ফাইবারের পরিমাণ বেশি থাকে এবং স্টার্চ থাকে যা পাকস্থলী ও অন্ত্রকে ঠাণ্ডা রাখে । যা রাতের ঘুমের জন্য দরকারি । অন্য দিকে  বিটা ক্যারোটিন একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিকারসিনোজেনিক উপাদান। মিষ্টি আলু খেলে মেলাটোনিন ও কর্টিসল হরমোনের নিঃসরণ ভাল হয় এবং রাতে গভীরভাবে ঘুমাতে সাহায্য করে ।  রাতের ঘুম ভাল হলে মানসিক অবসাদ কমে, ত্বককে উজ্বল ও হাড়কে শক্ত করে এবং কাজে উৎসাহ বাড়ে ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...