মিয়া খলিফা, পর্ণ জগতের কাজ ছেড়ে দিলেও ভক্তদের মনে এখনও জায়গা রয়েছে

0

বংদুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ- মিয়া খলিফা দিয়ে স্নাতক পড়ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ে। আজ যে পর্ন স্টার নামে পরিচিত তিনি নিজেকে গুটিয়ে রাখতেন ক্যাম্পাস জীবনে। তার মনে হত আত্ম-সম্মান বোধের ঘাটতি রয়েছে তার। পাচ্ছিলেন না আত্ম-বিশ্বাস। মিয়া খলিফা সমাধানে ব্যায়াম শুরু করলেন। কয়েকদিন ওজন কমিয়ে ফেললেন ৫০ পাউন্ড। সার্জারি করিয়ে বড় করলে স্তনের আকার। তবু মন বলছিলো কোন উন্নত হচ্ছে না।

মিয়া খলিফা একজন লেবানিয় মার্কিন সামাজিক মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও ওয়েবক্যাম মডেল। তিনি প্রাপ্তবয়স্ক মডেল হিসাবে পরিচিত। তিনি একজন পর্ন তারকা।  ২০১৪ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত পর্নোগ্রাফিক অভিনেত্রী হিসাবে পরিচিত। বৈরুতে জন্ম নেওয়া মিয়া খলিফা ২০০০ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্থানান্তরিত হন। ২০১৪ সালের অক্টোবরে পর্ণোগ্রাফি চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন এবং পর্ণহাব ওয়েবসাইটের তালিকায় ডিসেম্বরে ১ নম্বরে অবস্থান করেন। পর্ন তারকা হিসাবে তার খ্যাতি আজ সারা বিশ্বে।

 

২০০০ সালে মাত্র ১০ বছর বয়সে পরিবারের সাথে যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের সাথে বসবাস শুরু করেন। ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস অ্যাট এল পাসো থেকে বিএ পাশ করেন ইতিহাসে। ২০১৪ সালে ফাস্ট ফুড রেস্তরায় কাজ শুরু করেন এই পর্ন তারকা। এখান থেকেই যুক্ত হন পর্ন জগতে। পর্ন জগতে যুক্ত হয়ে তিনি হয়ে উঠেন পর্ন তারকা। মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষনণশীল প্রথার মহিলাদের এমন পেশায় আসা অবাক হওয়ার মতো। মার্কিন এক পরিচালক তাকে পর্ন অভিনয়ের প্রস্তাব দিলে বুঝে না বুঝে রাজি হয়ে যান মিয়া খলিফা। তিনি ভেবেছিলেন এতে বাড়বে আত্ম-সম্মান বোধ, আত্ম-বিশ্বাসও।

প্রথম দিনের অভিনয়ের কথা বলতে গিয়ে মিয়া খলিফা বলেন, ‘প্রথমদিন পর্ন অভিনয় করার পর একই সঙ্গে লজ্জা ও অপরাধবোধ কাজ করছিলো। একই সঙ্গে মনে হচ্ছিলো আমি ঠিক করা করেছি। তখন আমি আসলে ২১ বছর বয়সী একটা গাধা ছিলাম।’

প্রথম দিন অভিনয়ের পর খুব বেশি বিচলিত হননি। ভেবেছিলেন কোম্পানির বাইরে কেউ তার পর্ন গুলো খুঁজে পাবে না। কিন্তু পরে হঠাৎ চারদিক থেকে ব্যাপক সাড়া পেয়ে ভড়কে যান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন একাউন্ট না থাকায় একথা মনে করেন।

পর্নোগ্রাফি থেকে তাঁর আয় নিয়ে কিছু ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে। সেখান থেকে খুব কম টাকাই পেয়েছেন তিনি। নিজের ভেরিফায়েড টুইটার হ্যান্ডলে মিয়া খালিফা লিখেছেন, অনেকে ভাবেন পর্নোগ্রাফি থেকে তিনি কোটি কোটি টাকা আয় করেন। এটা ঠিক নয়। তিনি পর্নো ইন্ডাস্ট্রি থেকে মোট ১২ হাজার ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় ৮ লক্ষ ৫৫ হাজার টাকা) আয় করেছেন। পর্ন ইন্ডাস্ট্রি ছাড়ার পর সেখান থেকে আর একটা পয়সাও পাননি। পর্ন ইন্ডাস্ট্রি ছাড়ার পর সাধারণ কোনও কাজ খুঁজে পাওয়া কঠিন, এটা খুব ভয়ের।

পর্ন সিনেমায় অভিনয় বাদ এখন মিয়া খলিফা কোনও টক শো হোস্ট করছেন । ‘আউট অফ বাউন্ডস’ নামের এই শো-এ মিয়ার সঙ্গে থাকছেন প্রাক্তন ওয়াশিংটন উইজার্ড গার্ড গিলবার্ট অ্যারিনা। কমপ্লেক্স নিউজ-এর ইউটিউব চ্যানেলে দেখা যাচ্ছে এই শো। গত ১৬ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এই শো ইতিমধ্যেই পছন্দ করছেন সোশ্যাল অডিয়েন্স।

পর্ন ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি রান্নাও করেন মিয়া খলিফা। নুডলস, পাস্তা, চিজ, গোলমরিচ দিয়ে বানিয়ে ফেললেন চটজলদি খাবার। সেই ছবি টুইটারে শেয়ার করে মিয়া ভক্তদের কাছে জানতে চেয়েছেন, ‘কী দিয়ে গার্নিশ করা যায় বলো তো?’

ভারতীয় উপমহাদেশে সর্বোচ্চ সার্চ করা হয় মিয়া খলিফার পর্ন ভিডিও। তার পেশা নির্বাচন মধ্যপ্রাচ্যের বিতরকের বিষয়ে হয়েছিল বিশেষ করে একটি ভিডিও। যেখানে তিনি ইসলামী হিজাব পরিহিত অবস্থায় যৌন কর্ম সঞ্চালন করেছিলেন। এমনকি হত্যার হুমকিও পেয়েছেন মিয়া খলিফা।

খলিফা শব্দের অর্থ প্রতিনিধি। কিন্তু এই লেবাননী নারী ইসলামিক হিসাব পরিহিত অবস্থায় যৌনকর্ম সঞ্চালন করেন। তার পেশা ও পোশাক নিয়ে মধ্যপ্রাচ্য সহ সারা বিশ্বে আলোচিত ও সমালোচিত। পর্ন তারকা পেশা হিসাবে সমালোচিত হলেও খলিফার মধ্যে রয়েছে শিক্ষা ও নারি স্বাধীনতার প্রতিশ্রুতি।

খলিফা বর্তমানে মায়ামি ফ্লোরিডা বসবাস করছেন। ফেব্রুয়ারি 2011 সালে 18 বছর বয়সের স্বল্প সময় পরই খলিফা একজন মার্কিন ব্যক্তিকে বিয়ে করেন। মিয়া খালিফা ইসলাম ধর্ম ত্যাগ করে পরে খ্রিস্টান ধর্মে দিক্ষিত হন। মিয়া খলিফা পরিবারের সাথে কোন প্রকার যোগাযোগ রাখেন না। নীল পর্দা কাঁপানো একটা নাম৷ রাতের অন্ধাকারে অন্য রসায়ন বইয়ে দেয় বিছানা! উঠতি এই নীল-তারকাকে নিয়ে রহস্যের অন্ত নেই পুরুষ মনে৷ বিয়ের পর বিশ্বের নাম্বার ওয়ান পর্নস্টার মিয়া খলিফার বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ তুলেছেন জনপ্রিয় কানাডিয়ান অভিনেত্রী আয়েশা কারি!

View this post on Instagram

#COYI ⚒ @westham

A post shared by Mia K. (@miakhalifa) on

২০১৫ সালে মিয়া খলিফার ভারতে আসার কথা ছিল। শোনা যায় তার না আসায় অনেক ভক্ত অভিমান করে মিয়া খলিফার পর্ন বয়কট করেছিলেন। বাংলাদেশে ভুলো হোকে, জ্ঞাতে হোক আর অজ্ঞাতেই হোক মিয়া খলিফা নবম-দশম শ্রেণীর প্রশ্ন পত্রের বিষয় হয়ে উঠেন। প্রশ্নটি এরকমই ছিল ‘বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতার নাম কী?’ সম্ভাব্য চারটি উত্তরের মধ্যে আছে সাবেক পর্ন তারকা মিয়া খলিফার নাম। মিয়া খলিফা অভিনয়ের সাথে পোশাক ব্যবহারেও অনেক বেশী স্বাধীন চেতা। পুরুষ পর্ন অভিনেতার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের সময় তিনি হিজাব পরা ছিলেন।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...