সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

উইঘুর মুসলিমদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে সরব আমেরিকা-ব্রিটেন, ফের চাপে চীন সরকার

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ চিনের উইঘুরে সংখ্যালঘু মুসলিমদের উপর দিনের পর দিন অকথ্য অত্যাচার চালিয়ে আসছে চীন প্রশাসন । অথচ চীনের ভয়ে কোন মুসলিম দেশ এখনও পর্যন্ত প্রতিবাদ করেনি । এবার রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উইঘুরে মুসলিম সম্প্রদায়ের উপর অত্যাচারের প্রশ্ন তুলল আমেরিকা, ব্রিটেন, জার্মানি । তারা একযোগে চিনের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা পরিষদে অভিযোগ তোলে। তাদের বক্তব্য ছিল দীর্ঘদিন ধরে চিনে উইঘুর সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে।

বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলি এবার চীনের উইঘুরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর নিপীড়ন এবং অত্যাচারের প্রশ্ন তুলে নিরাপত্তা পরিষদে অভিযোগ জানাল । রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে চিনকে একঘরে করে ছাড়তে বিশ্বের তাবড় দেশ একযোগে চাপ সৃষ্টি করতে চলেছে ।যদিও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এই তথ্যকে অসত্য বলে দাবি করেন চিনের বিদেশমন্ত্রী। এই বিষয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে গোটা বিষয়টিকে ‘ফেক নিউজ’ বলে এড়িয়ে যান তিনি।

এতদিন চিনের সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায় উইঘুরদের নিয়ে একাধিক সংবাদ শিরোনাম হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই তাদের ওপর অত্যাচার চালাচ্ছে বেজিং । অথচ চীনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস কেউ দেখায় নি । এই প্রথম উইঘুর সংখ্যালঘু ইস্যু নিয়ে বুধবার রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে তুলে ধরে এই তিন দেশ।কাউন্টার টেররিজম সম্পর্কে আলোচনা করতে গিয়ে এই তিন দেশ চিনের উইঘুরদের প্রসঙ্গ তোলে। আবেদন করা হয়, চিন যেন এই সম্প্রদায়ের মানুষদের ওপর কাউন্টার টেররিজম বন্ধ করে। নিরাপত্তা পরিষদে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী সদস্য কেলি ক্রাফট জানান চিনের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। অবিলম্বে এই অত্যাচার বন্ধ করা দরকার। এভাবে দিনের পর দিন মানবাধিকার লঙ্ঘন হতে পারে না।

শুধু মার্কিন মুখপাত্র নয়, নিরাপত্তা পরিষদে একই সুরে কথা বলেন ব্রিটেনের প্রতিনিধি জেমস রস্কো। তিনি বলেন বিশ্ব জুড়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানবাধিকার রক্ষা করা সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রের কর্তব্য। কিন্তু দুঃখের বিষয় চিনের উইঘুরদের সাথে সেটা হচ্ছে না। দিন কয়েক আগেই একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্টে প্রকাশিত তথ্যে জানা যায়, চিনের সংখ্যালঘু মুসলিম এবং চিনের পশ্চিমাঞ্চলের উইঘুর সম্প্রদায়ের মুসলিমদের বিষেশত মহিলাদের জন্ম নিয়ন্ত্রণের উপর চাপ সৃষ্টি করছে চিনা সরকার।

চিনে মুসলিমদের উপর অত্যাচারের ঘটনা নতুন কিছু নয়। এর আগেও বহুবার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের দ্বারা চিনা মুসলিমদের উপর নিদারুণ অত্যাচারের বিষয় প্রকাশ্যে আসে। যা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে রাষ্ট্রসংঘ। এই বিষয়ে চিনকে সতর্কও করে ব্রিটেন, আমেরিকাও।তবে ফের উইঘুর সম্প্রদায়ের মহিলাদের উপর চিনা সরকারের অত্যাচারের কাহিনী প্রকাশ্যে আসতেই হইচই পড়ে যায় বিশ্ব জুড়ে। এবার নিরাপত্তা পরিষদে চীনের বিরুদ্ধে একের পর এক শক্তিশালী দেশ নেমেছে।

মন্তব্য
Loading...