সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস গালওয়ানে নিহত চীনা সেনার সমাধির ! উঠে আসছে আরও অজানা তথ্য

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ চলতি বছরের ১৫ই জুন রাতে লাদাখ সীমান্তের গালওয়ান উপত্যকায় চীনা সেনাদের সাথে ভারতীয় জওয়ানদের মুখোমুখি রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা শহীদ হয়েছিলেন । তারপর থেকেই ভারত-চিন সম্পর্কের চরম অবনতি ঘটে । সেই অভিশপ্ত রাতে ভারতীয় সেনার সাথে বেশ কিছু চীনা সেনার মৃত্যু ঘটে । যদিও কত জন সৈন্য তাদের মারা গেছে সেই তথ্য চিন এখনও পর্যন্ত বিশ্বকে জানায়নি,  তবে অনেকের ধারনা সংঘর্ষের ফলে অন্তত ৪০ জন চীনা সেনার মৃত্যু হয়েছিল । এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় গালওয়ানে নিহত চীনা সেনার সমাধির ছবি প্রকাশিত হল । পাশাপাশি উঠে এল সেই রাতে ঠিক কি হয়েছিল সে সম্পর্কে আরও অনেক অজানা কথা ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এবার ১৫ জুন রাতে নিহত চীনা সেনার সমাধির ছবি প্রকাশ পেল । ছবিটি প্রকাশ পাওয়া মাত্র ভাইরাল হয়েছে । চিনা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ এম টেলর ফ্রেভেল সম্প্রতি দাবি করেছেন, চিনা মাইক্রোব্লগিং সাইট ‘ওয়েইবো’তে একটি ছবি শেয়ার করা হয়েছে, যা গালওয়ানে নিহত এক চিনা সেনার সমাধি-প্রস্তরের ছবি। সেই সমাধি-প্রস্তরের লেখা দেখে জানা যাচ্ছে সেটি এক ১৯ বছর বয়সী চিনা সৈনিকের সমাধি। ২০২০ সালের জুন মাসে ‘চিন-ভারত সীমান্ত প্রতিরক্ষা সংগ্রামে’-তার মৃত্যু হয়েছে । সৈনিকটির বাড়ি চিনের ফুজিয়ান প্রদেশে । ওই সৈনিক ৬৯৩১৬ ইউনিটের সদস্য। টেলর-এর মতে সম্ভবত সেটি গালওয়ানের উত্তরে, চিপ-চাপ উপত্যকায় মোতায়েন ‘তিয়ানওয়েন্ডিয়ান সীমান্ত প্রতিরক্ষা বাহিনী’র সমাধি।

চিনা মাইক্রোব্লগিং সাইট ‘ওয়েইবো’তে যে ছবি শেয়ার করা হয়েছে তা দেখে এম টেলর ফ্রেভেল দাবী করেছেন, ২০১৫ সালে চিনের কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশন যে ইউনিটের নাম রেখেছিলেন ‘ইউনাইটেড কমব্যাট মডেল কোম্পানি’ সেটি চিনা পিএলএ-র ১৩ তম বর্ডার ডিফেন্স রেজিমেন্টের অংশ-ও হতে পারে । ফলে ভারত-চিন সীমান্তের গালওয়ান উপত্যকায়  চিনা পিএলএ-র কোন ইউনিট মোতায়েন রয়েছে, তাও স্পষ্ট হয়ে গেল ।

এম টেলর ফ্রেভেলের শেয়ার করা ছবি ছাড়াও নেট দুনিয়ায় আরও কিছু ছবির খোঁজ পাওয়া গেছে । সেই ছবিগুলি দেখে জোরাল দাবী উঠে আসছে যে, সেগুলি আসলে ১৫ জুন রাতে নিহত চীনা সেনাদের সমাধির ছবি । কারন  একটি ছবিতে এম টেলর ফ্রেভেলের শেয়ার করা ছবির সমাধি প্রস্তরের মতো বেশ কয়েক সারি সমাধি প্রস্তর দেখা গিয়েছে। প্রাথমিক গণনায় সংখ্যাটা ৫০-এর বেশি বলে মনে হচ্ছে। এ

এই ছবি প্রকাশ্যে আসার পর জানা গেল ১৫ জুন রাতে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহীদ হলেও তাদের দ্বিগুণের বেশী চীনা সেনাকে খালি হাতেই খতম করতে পেরেছিলেন । গালওয়ানের সংঘর্ষের পর ভারত ক্ষয়ক্ষতির পুরো হিসাব দিলেও, নিহত সৈন্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে যথাযথভাবে তাঁদের শেষকৃত্যও সম্পন্ন করতে দেওয়া হয়নি বলে বেজিং-এর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল। যা নিয়ে নিহত সৈন্যদের আত্মীয় পরিজনরা অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছিলেন। কিছু কিছু জায়গায় বিক্ষোভও হয়েছিল।অবশেষে ছবিটা কিছুটা হলেও প্রকাশ পেল ।

মন্তব্য
Loading...