সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

Tik Tok: চীন থেকে ব্যবসা গুটিয়ে অন্য দেশে পাড়ি দিতে চাইছে জনপ্রিয় টিকটক !

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ লাদাখে চিন-ভারতের মধ্যে সংঘর্ষের পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক তলানিতে ঠেকেছে । তৈরি হয়েছে যুদ্ধের আবহ । একের পর এক ভারতীয় সিদ্ধান্তে নাজেহাল চীন । এর মধ্যে ৫৯ টি চীনা অ্যাপ ব্যান করে ভারত, যার মধ্যে ছিল বিশ্বের জনপ্রিয়তম অ্যাপ টিকটক । বিশাল অংকের আর্থিক ক্ষতি সামলাতে চীন থেকে সরে আসতে চাইছে এই সংস্থা ।

ভারত সরকার ৫৯ টি চীনা অ্যাপ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তের পর টিকটক বিশাল অংকের আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়েছে । ভারতের সিদ্ধান্তের পর, ইতিমধ্যে আমেরিকাও টিকটক ব্যান করার চিন্তা শুরু করে দিয়েছে । শুধুমাত্র ভারতে টিকটক ব্যান হয়ে যাবার ফলে সংস্থাটি প্রায়  ৪৫,০০০ কোটি টাকা লোকসানের মুখে পড়তে চলেছে বলে খবর সংস্থাটির সূত্রে।কারন গোটা পৃথিবীতে  শুধুমাত্র ভারতেই এই অ্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২০ কোটি।

টিকটক অ্যাপটি চিনে পাওয়া না গেলেও চিনা সংস্থার এই সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপটি বিভিন্ন দেশ সহ ভারতে বেশ জনপ্রিয়। ভারত থেকে ব্যান হওয়ায় এই বিশাল আর্থিক ক্ষতি হয়েছে, এবার যদি আমেরিকা বা অন্যান্য দেশ টিকটককে ব্যান করার সিদ্ধান্ত নিতে থাকে তাহলে সমূহ বিপদের মুখে পড়বে । আর এইসব কারনের ফলে এবার চিন থেকে দূরত্ব চাইছে টিকটক।

সংবাদ সংস্থা , রয়টার্সের তরফে পাওয়া খবর অনুযায়ী, ভারতে চিনা অ্যাপ ব্যান হওয়ার পর থেকেই বেজিং-য়ের থেকে নিজেকে দূরে সরাতে চাইছে টিকটক সংস্থা। আর তাই হেডকোয়ার্টার বদলানোর ব্যাপারে ইউকে-এর সঙ্গে আলোচনা করছে এই সংস্থা। ‘বাইটড্যান্স’ নামক একটি চিনা সংস্থার নিয়ন্ত্রণাধীনে রয়েছে টিকটক। রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী  ‘বাইটড্যান্স’ সংস্থা চাইছে টিকটকের হেডকোয়ার্টার হোক লন্ডন।

যদিও এখনও পর্যন্ত স্পষ্টভাবে টিকটকের পক্ষ থেকে কিছুই জানা যায়নি, তবে টিকটক যে এই মুহূর্তে বিশাল আর্থিক ক্ষতির শিকার হয়েছে সেটি পরিষ্কার । এদিকে ক্যালোফোর্নিয়াতে টিকটক লোক নিয়োগ শুরু করেছে। বিভিন্ন দেশের তরফে চিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে টিকটক অ্যাপের মাধ্যমে অন্যান্য দেশের প্রচুর তথ্য চুরি করছে চিন। যা মোটেই নিরাপদ নয়। আর এই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে ওয়াশিংটন। সেই অভিযোগ খণ্ডন করাও টিকটকের কাছে চ্যালেঞ্জ হবে ।

মন্তব্য
Loading...