সুন্দরবন কেন্দ্রীক ৬ টি বিশেষ পর্যটন এলাকা তৈরী করা হবে-পর্যটন সচিব

0

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয় সচিব মো. মহিবুল হক বলেছেন, সুন্দরবন কেন্দ্রীক ৬টি বিশেষ পর্যটন এলাকা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সুন্দরবনের কোল ঘেষা খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষিরা জেলায় এই বিশেষ পর্যটন এলাকা তৈরী করে দেশী ও বিদেশী পর্যটকদের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করা হবে। যাতে ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইড সুন্দরবনকে বিশ্বের বুকে তুলে ধরতে পারি।

শুক্রবার সকালে বাগেরহাটের বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ ও ঘোড়া দিঘি পরিদর্শন শেষে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, সুন্দরবন ও বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদ কেন্দ্রীক পর্যটনের সুযোগ সুবিধা সরকারের নানা পরিকল্পনা রয়েছে। আপনাদের সহযোগিতায় এসব এলাকাকে পর্যটন বান্ধব করা হবে। এছাড়াও দেশী-বিদেশী পর্যটকদের আকর্ষণ করতে সবধরণের চেষ্টা পর্যটন মন্ত্রণালয় থেকে করা হবে।

জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত বাগেরহাট জেলার পর্যটন শিল্পের বিকাশ,সমস্যা, সম্ভবনা ও চ্যালেঞ্জ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি আহাদ উদ্দিন হায়দার, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভিন, ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ আকতারুজ্জামান বাচ্চু, ষাটগম্বুজ মসজিদের কাষ্টোডিয়ান গোলাম ফেরদাউস প্রমুখ।

এছাড়াও মতবিনিময় সভায় সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিয়ে অংশগ্রহনকারীরা পর্যটন সম্ভাবনাময় বাগেরহাট জেলাকে গুরুত্ব দিয়ে আরও বেশি পর্যটন জোন গড়ে তুলতে পর্যটন সচিবকে অনুরোধ করেন। এছাড়াও পর্যটন শিল্পের বিকাশে অতিদ্রæত বাগেরহাটের খানজাহান আলী বিমান বন্দর চালু করার দাবি জানান বক্তারা।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...