সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

এবার মিশন অযোধ্যার রামমন্দির ! আগস্টেই ভুমি পূজা, থাকবেন নরেন্দ্র মোদী

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ অবশেষে শুরু হতে চলেছে অযোধ্যার রাম মন্দিরের কাজ । আগস্ট মাসেই ভগবান শ্রীরামের মন্দির নির্মাণের ভুমিপূজা ঠিক হতে চলেছে । জানা গেছে, রামমন্দিরের ভুমিপুজায় উপস্থিত থাকতে পারেন ভারতের প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর অযোধ্যা জট কেটেছে । কিন্তু তারপরেই শুরু হয়েছে দেশজুড়ে করোনার ভয়ানক পরিস্থিতি । সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর অযোধ্যার মন্দির নির্মাণ কাজ এত দিনে শুরু হয়ে যাবার কথা থাকলেও করোনা সংক্রমণের জেরে নির্মাণের কাজ পিছিয়ে যায় । অবশেষে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মোতাবেক যে রামমন্দির ট্রাস্ট গঠিত হয়েছে, তাদের বৈঠক বসেছে  অযোধ্যায় ।

আগস্টের প্রথম সপ্তাহেই হতে পারে রামমন্দির তৈরির ভুমিপূজা। আজ বিকেলে রাম মন্দির ট্রাস্টের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আগামী ৩রা এবং ৫ই আগস্ট ওই ভূমি পূজার দিন ঠিক হয়েছে বৈঠকে। সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা যাচ্ছে, আজ বিকেলে বৈঠক অযোধ্যার সার্কিট হাউসে বৈঠক হয় ট্রাস্টের সদস্যদের। সেখানে উপস্থিত ছিলেন উত্তরপ্রদেশের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব অবনীশ কে অবস্থি ও অন্যান্যরা। এদিনের বৈঠকে রামমন্দির নির্মাণের জন্য ভুমিপূজা কবে হবে, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের দেওয়া রামমন্দিরের নকশাটিকে কিভাবে আরও সুন্দর করে তোলা যায় এই সমস্ত বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকের পর ট্রাস্টের এক কর্তা বলেন, “রাম মন্দিরের ভুমিপূজার জন্য আমরা ৩রা এবং ৫ই আগস্ট এই তারিখ দুটি বেছে নিয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে দুটি তারিখ। উনি যেদিন ঠিক করবেন সেদিনই নির্মাণ কার্য শুরু হবে। একইসাথে ওনাকে আমন্ত্রণও জানানো হবে ওইদিন হাজির থাকার জন্য।” বৈঠকের পর ট্রাস্টের জেনারেল সেক্রেটারি চম্পত রাই বলেন, “মন্দির নির্মাণের স্থানের মাটির নমুনা পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। বর্তমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে উঠলে আমরা দেশের চার লক্ষ অঞ্চলে ১০ কোটি মানুষের কাছে যাব মন্দির নির্মাণের আর্থিক সহায়তার জন্য।”

করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় মার্চ মাসে দেশ জুড়ে লকডাউন ঘোষণা করার পর এই প্রথম ফের রামমন্দির ট্রাস্টের সদস্যরা একসাথে মিলিত হয়েছেন  । সুত্র মারফৎ একটা কানাঘুষো চলছে,  রাম মন্দির নির্মাণ করার কাজ  চলতি বছরের আগস্ট মাস থেকেই শুরু হয়ে যাওয়ার কথা রয়েছে। আগস্ট মাস থেকেই  রাম মন্দির নির্মাণ কাজের অনুমতি দিয়ে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। আর এই মন্দির নির্মাণের আগে ভূমি পুজার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী ৫ ই আগস্ট অযোধ্যা যেতে পারেন। এই সময় শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্রের সমস্ত ট্রাস্টি; শীর্ষ সাধু-সন্ন্যাসী সমেত এই সংঘের প্রধান মোহন ভগত থাকছেন।

রামমন্দির ট্রাস্টের পক্ষ থেকে জানা যাচ্ছে,  অযোধ্যায় রাম মন্দিরের ভূমি পূজন করার পর প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী মন্দির নির্মাণের সমস্ত নিয়ম কানুনের শুভ আরম্ভ করবেন। ওই দিনের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সহ আরো কয়েকজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। তবে ওইদিন সেখানে কোনো জমায়েত সৃষ্টি করা যাবে না বলে জানানো হয়েছে। কারণ বর্তমানে যেভাবে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলেছে তাতে কোনো ভাবেই জমায়েত করতে দেওয়া যাবে না।

এদিকে নেপালের প্রধান মন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি ভগবান রামের জাতীয়তা এবং অযোধ্যা নিয়ে যে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন তার তীব্র প্রতিবাদ হয়েছে অযোধ্যা থেকে । আগামী দিনে ভারতীয় ধর্মাবেগে আঘাত করার জন্য নেপালকে দায়ী করা হতে পারে বলে কেউ কেউ দাবী করছেন । এছাড়া দুই দিন আগেই অযোধ্যায় বৌদ্ধ ভিক্ষুরা বিক্ষোভ করে । তাদের দাবী ছিল, অযোধ্যা নাকি বৌদ্ধধর্মের একটা অংশ ছিল । অযোধ্যায় ফের খনন কাজ ইউনেস্কর সামনে করার দাবিও জানান তারা ।

মন্তব্য
Loading...