এবার করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল হলেন আলিবাবার সিইও জ্যাক মা

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ নয়া আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস । চীনে মহামারীর আকার নিয়েছে এই ভাইরাস । সারা পৃথিবী জুড়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা চালাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক বের করার জন্য । এবার আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা এবং চীনের শীর্ষ ধনী জ্যাক মা করোনাভাইরাসের ভ্যাক্সিন বা প্রতিষেধক আবিস্কারের জন্য বিজ্ঞানিদের পাশে দাঁড়ালেন ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO ইতিমধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রামণকে জরুরী অবস্থা হিসাবে ঘোষণা করেছে । চীনের সরকার করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সব রকম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিলেও এখনও পর্যন্ত ভ্যাক্সিন বের করতে না পারায় মৃত্যু ঠেকানো যাচ্ছে না ।  ভাইরাসটি ছড়ানোর পর চীনে তার প্রতিষেধক বা ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে বিজ্ঞানী-চিকিৎসকরা।করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরিতে চীনের বিজ্ঞানীদের সহায়তার জন্য ১০০ মিলিয়ন ইয়ান বা ১৪.৪  মিলিয়ন ডলার দেবার অঙ্গীকার করেছেন ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা এবং চীনের শীর্ষ ধনী জ্যাক মা ।

আলিবারার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা বিপুল পরিমাণে এই অর্থের ৪০ শতাংশ দেবেন চাইনিজ একাডেমি অব সায়েন্স এবং চাইনিজ একাডেমি অব ইঞ্জিনিয়ারিংকে। বর্তমানে চীন সরকার সরকারীভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন করোনাভাইরাসের ভ্যাক্সিন আবিস্কারের জন্য । এছাড়া চীনে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক বের করার জন্য একটি ফান্ড গঠন করার কথা ভাবা হচ্ছে । জানা গেছে জ্যাক মা সেই ফান্ডেই টাকা দেবার কথা ঘোষণা করেছেন । এছাড়াও জানা গেছে, আলিবাবার সিইও জ্যাক মা অর্থ সাহায্য ছাড়াও  তার প্রতিষ্ঠানের এআই কম্পিউটিং পাওয়ার কোন প্রকার শর্ত ছাড়া কাজে লাগানোর কথাও জানিয়েছেন।

আলিবাবার অধীনে জ্যাক মা একটি ফাউন্ডেশন তৈরি করেছেন । সেই ফাউন্ডেশনের নাম তাইকুন ।  জ্যাক মার তৈরি করা ফাউন্ডেশন তাইকুন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানিয়েছে,  করোনাভাইরাস ঠেকাতে এবং এর ভ্যাকসিন তৈরিতে চিকিৎসা বিজ্ঞানে সহায়তা করার অনেক কিছুই তাদের আছে। সেগুলো নিঃশর্তে ব্যবহার করতে দিতে চান জ্যাক মা।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...