মমতার কল্যাণে ছট পূজার ছুটি বিহারে ২ দিন হলেও বাংলায় ৩ দিন ঘোষণা করা হল

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ ছট পূজার ছুটি বিহারে ২ দিন হলেও বাংলায় তিন দিন ।  বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শাসনে বিহারীরা যে বিহারের থেকেও পশ্চিমবাংলায় বেশি সুযোগ পায় সে কথা স্বীকার করে নিলেন রাষ্ট্রীয় বিহারী সমাজ । সংগঠনের সভাপতি মনি প্রসাদ সিং বলেন, “এ কথা বলতে দ্বিধা নেই আমরা বিহারীরা বিহার থেকে বাংলাতেই অনেক ভালো আছি । মমতাদি আমাদের সাথে স্বার্থে যা করেছেন তা অভাবনীয় ।” বিহারীদের অন্যতম উৎসব ছট পুজা উপলক্ষ্যে বাংলায় তিন দিনের ছুটি ঘোষণা করা হল । 

ছট পুজা আসলে বিহারীদের সূর্য পুজা । এই পুজা উপল ক্ষ্যে গোটা বিহার ধুমধাম করে উৎসব করে । এই উৎসব মুলত তিন দিন ধরেই চলে । তিন দিনের এই উৎসব ধুমধাম করে পালিত হয়, পশ্চিম বঙ্গ, বিহার এবং ঝাড়খণ্ড । কিন্তু একমাত্র বাংলা ছাড়া সকল রাজ্যে দুই দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে । আগামী ৩রা নভেম্বর ছট পুজা । প্রতিবার ছট পুজায় রাজ্য সরকার ছুটি ঘোষণা করে । কিন্তু এবার ছট পূজার দিন পড়েছে রবিবার । একারনে ৪ঠা  নভেম্বর রাজ্যে ছুটি  ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

উল্লেখ্য বাম জমানায় ছট পুজায় বাংলায় মাত্র একদিন ছুটি ঘোষণা করা হত । ক্ষমতায় আসার পর মমতা বন্ধ্যপাধ্যায় সেই ছুটি বাড়িয়ে দুই দিন করেন । এই বছর বিহারী সমাজের অনুরধে ছট পূজার ছুটি ৩ দিন করা হল । হুট হাট করে ছুটি দিলে সরকারী কর্মচারীরা খুশি হন এ কথা সত্যি । কিন্তু স্বাভাবিক সরকারী কাজ কর্মে যে ক্ষতি  এবং এর ফলে নানান অসুবিধায় পড়েন সাধারন মানুষ ।  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আচমকা এই ভাবে ছুটি বাড়ানো নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে । শিবরাত্রী, ছটপুজো, জামাইষষ্ঠী, ভাইফোঁটার মতো পার্বনে ছুটি চালু হয়েছে তাঁর আমলেই। বিরোধীরা এমনও বলে যে, রাজ্যে বন্‌ধ পালনের বিরোধিতা করে কর্মসংস্কৃতির কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী,  কিন্তু কারণে অকারণে ছুটি দেওয়ার ব্যাপারে তিনি যেন কল্পতরু ।সুতরাং এই ছুটি নিয়ে বিরোধীরা যে আবার সমালোচনা করার জন্য মুখ খুলবেন না, এ গ্যারান্টি কেউ দিতে পারবে না ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য