ভয়ংকর খাদ্য সংকটের মুখোমুখি হতে চলেছে সমগ্র বিশ্ববাসী

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: ভয়ংকর বিপদ ঘনিয়ে আসতে চলেছে সমগ্র বিশ্ববাসী’র জীবনে। ব্যপক পরিমাণ খাদ্য সংকটের মুখোমুখি হবে বিশ্ব, আর এর মূল কারণ হিসাবে আবহাওয়া পরিবর্তন এবং বিশ্ব উষ্ণায়ন এর মতো বড় সমস্যাকে দায়ী করা হচ্ছে।

সম্প্রতি জাতিসংঘের পক্ষ থেকে একটি নতুন প্রতিবেদন পেশ করা হয়েছে, যাতে বলা হয়েছে, আবহাওয়া পরিবর্তন আগামী দিনগুলোতে সমগ্র বিশ্বে খাদ্য সুরক্ষার ক্ষেত্রে ভয়ঙ্কর প্রভাব ফেলতে পারে। সময়সীমা হিসাবে জানানো হয়েছে, আগামী ২০৫০ সালের মধ্যেই এমনটা হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ওই সময় পৃথিবীতে খাদ্যের চাহিদা প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়ে যাবে, কিন্তু তুলনামূলক উৎপাদন কমে যাবে প্রায় ৩০ শতাংশ।

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন পরিচালিত ‘দ্য গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপ্টেশন’ (জিসিএ) এর প্রতিবেদন থেকে এমনটা জানা গেছে। বিশ্বের মোট ১৯টি দেশ এই সংস্থা’র অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ওই সংস্থার আওতায় রয়েছে ১৯টি দেশ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পুরো পৃথিবী জুড়ে চাষাবাদের বহু জমির উর্বরতা নষ্ট হয়ে যাবে। জমিগুলো উৎপাদন ক্ষমতা হারাবে। তৈরি হবে মরুভূমি। খাদ্য সংকটের ফলে দেখা দেবে বৈষম্য। ফলে বিভিন্ন প্রজাতি অবলুপ্তির দিকে এগিয়ে যাবে।

এপ্রসঙ্গে জাতিসংঘের কর্মকর্তা ইব্রাহিম থিয় জানান, আগামী ২০৫০ সালে ১০০ কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদার জন্য আরও ৫০ শতাংশ বেশি খাদ্যের উৎপাদন প্রয়োজন। কিন্তু আমরা আবহাওয়া পরিবর্তন রুখতে ব্যর্থ হচ্ছি! এর ফলে পৃথিবী জুড়ে চাষাবাদের বহু জমির উর্বরতা নষ্ট হয়ে যাবে এবং জমিগুলো উৎপাদন ক্ষমতা হারাবে, যার ফলে তৈরি হবে মরুভূমি। এরপর খাদ্য সংকটের ফলে দেখা দেবে বৈষম্য এবং যার ফলে বিভিন্ন প্রজাতি অবলুপ্তির দিকে এগোবে।

সুতরাং, বর্তমানে আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে কৃষি বিষয়ক গবেষণাকে আরো উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে আমাদেরকে। বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও আর্থিক সাহায্যের মাধ্যমে কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে পারলে হয়তো তাঁরা আমাদেরকে নিরাশ করবেন না।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...