জোর করে চুমু খাওয়ার সৌদি বাদশার মেয়ের কারাদন্ড

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ  সৌদি বাদশা সালমানে মেয়ে হাসা বিনতে সালমান ২০১৬ সালে তার অ্যাপার্টমেন্টে কাজ আসা এক ব্যাক্তিকে চুমু খেতে বাধ্য করেন। যার ফলে ফ্রান্সের একটি আদালত বাদশার মেয়েকে ১০ মাসের কারাদন্ড দেয়।

জানা যায়, হাসা বিনতে সালমান তার অ্যাপার্টমেন্টে কাজ করতে আসা এক ব্যক্তিকে তার পায়ে চুমু খেতে বাধ্য করেন। পরবর্তীতে ঐ ব্যক্তিকে মারধরও করেন। এ ঘটনায় ফ্রান্সের একটি আদালতে মামলা হলে অভিযোগ প্রমানিত হয়। যার ফলে আদালত বাদশার মেয়ে কারাদন্ডের পাশাপাশি ১০ হাজার ইউরো জরিমানা করেন।

মারধর ও জোর করে চুমু খেতে বাধ্যকরা কর্মচারী আশরাফ ইদ বলেন, তিনি রাজকন্যার ঘরে গিয়ে ছবি তুললে তাকে রাজকন্যার পায়ে চুমু খেতে বলা হয়। এরপর নিজের দেহরক্ষী রনি সাইদিকে তাকে মারধর করার নির্দেশ দেন রাজকন্যা।

আদালতে রায় ঘোষণা সময় বাদশার মেয়ে হাসা বিনতে সালমান উপস্থিত ছিলেন। ৪৩ বছর বয়সী হাসাকে কারাদন্ডর পাশাপাশি দেহরক্ষি রনি সাইদিকেও ৮ মাসের কারাদন্ড ও ৫ হাজার ইউরো জরিমানা করেন আদালত।

উল্লেখ্য ফ্যান্সে সৌদি রাজকন্যা ও তার দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে এক ব্যক্তিকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগের বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। রাজকন্যা হাসা এবং তার দেহরক্ষী দু’জনই ‘অন্যায়’ আচরণের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...