একি কাণ্ড! রনভীর সিং নাকি বদলাতে চলেছেন তাঁর নাম!?!

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ রনভীর সিং নাকি সিনেমার জন্য সবই করতে পারেন এমনটাই প্রচলিত বলিউডে। এবারে তিনি রনভীর সিং থেকে জয়েশভাই জোরদার হতে চলেছেন। অবাক হচ্ছেন তো? আসলে এটা কোনও বাস্তু মতে নাম পরিবর্তন নয়, রনভীর সিং এর আগামী ছবির নাম হল  “জয়েশভাই জোরদার”।

যবে থেকে তিনি হিন্দি সিনেমার জগতে পা রেখেছেন তবে থেকে তিনি সকলের প্রিয় মানুষটি হয়ে উঠেছেন। তাঁর প্রথম সিনেমা “ব্যান্ড বাজা বারাত” ভেঙে দিয়েছিল বক্স অফিসের অনেক রেকর্ড। একজন দিল্লীর ছেলের ভূমিকাতে তিনি যেন হয়ে উঠেছিলেন জীবন্ত। তাঁর বিট্টু চরিত্রটার প্রেমে পরেনি এমন খুব কম লোকই আছে। এরপর থেকে একটার পর একটা সিনেমাতে তিনি নিজের অভিনয় দক্ষতা এবং অভিনেতা হিসেবে নিজের ছাপ রেখে চলেছেন। তাঁর অভিনীত আলাউদ্দীন খলজি যেন সবাইকে ছাপিয়ে গেছে। এবারে একজন গুজরাতি ছেলের ভূমিকাতে এই সিনেমাতে হতে চলেছে তাঁর আত্বপ্রকাশ। এই গুজরাতি ছেলেটি নিছকই সাধারণ ছেলে নয় তিনি আবার মেয়েদের রক্ষাকর্তাও বটে। এই সিনেমার প্রথম লুকে অভিনেতাকে দেখা যাচ্ছে একজন ছাপোষা গুজরাতি ছেলের রূপে যার আশেপাশে রয়েছে অনেক ঘোমটা মাথায় মহিলা। এর আগে শুধুমাত্র একটি বিজ্ঞাপনীতে তাঁকে দেখা গেছে গুজরাতি চরিত্রে। তবে সিনেমাতে এই প্রথমবার। এই সিনেমার পরিচালক হলেন নবাগত দিব্যাঙ্গ ঠক্কর এবং প্রযোজনা করছেন যশ রাজ ফিল্মস।

এই সিনেমাটি একাধারে হবে হাসির এবং অন্যদিকে সমাজকে দেবে একটি কড়া বার্তা। মহিলারা যে সব দিক দিয়ে সমান সেটাই তুলে ধরা হবে এই সিনেমাতে। রনভীর সিংকে বলা হয় আনকনভেনশানাল নায়ক। তাঁর কাছে পরিচালক, প্রযোজক কোনটাই প্রথম নয় সিনেমার স্ক্রিপ্টাই আসল। এই সিনেমার স্ক্রিপ্ট তাঁকে মুগ্ধ করেছে তাই নবাগত পরিচালক হলেও তিনি রাজী হয়েছেন এই সিনেমা করতে। তাঁর মতে, “এই ধরণের চরিত্র আগে কখনও করিনি। তাই জয়েশভাই আমার কাছে এক প্রকার চ্যালেঞ্জই বটে। চার্লি চ্যাপলিনের কথা ধার করে বলা যায়, এই লোকটিও নিজের দুঃখ নিয়ে মজা করতে পারেন। কঠিন পরিস্থিতিতে তিনি সাধারণ থেকে অসাধারন হয়ে ওঠেন।”

এই সিনেমাতে তাঁর বিপরীতে রয়েছেন “অর্জুন রেড্ডি” খ্যাত শালিনী পাণ্ডে। এর আগের সিনেমা গুলিতে তিনি যেমনভাবে নিজেকে ভেঙ্গেছেন এবং ছক থেকে বেরিয়ে এসে বার বার নিজেকে প্রমাণ করেছেন, তেমনই এই সিনেমাতেও নিজেকে সঠিকভাবে ফুটিয়ে তুলতে তিনি প্রচুর খেটেছেন। কমিয়েছেন ওজন। এখন দেখা যাক তাঁর এই ছবি এবং চরিত্র সবাইকে কতটা আনন্দ দিতে পারে। এছাড়াও কিছুদিন বাদে তাঁর আরেকটি ছবিও মুক্তি পেতে চলেছে সেটা হল, “৮৩”। যেটা কপিল দেবের ৮৩ সালে ভারতকে বিশ্বকাপ জেতানোর ওপর ভিত্তি করে বানানো ছবি। তাঁর ভক্তকূল অধির আগ্রহে অপেক্ষা করে আছে এই দুটি সিনেমার। এখন শুধু মুক্তির অপেক্ষা।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...