নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতে অস্ত্র এবং গোলাবারুদ মজুত করছে পাকিস্তান!

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: ইতিপূর্বে বেশ কয়েকবার নিয়ন্ত্রণরেখার শান্তি বিঘ্নিত করে ভারতের সীমান্তে সশস্ত্র কার্যকলাপ চালিয়েছে পাকিস্তান। এমনকি এই নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বাদ-বিবাদ হয়ে যাওয়ার ঘটনাও কারও অজানা নয়। আবারও একবার ভারত-পাক সীমান্তের শান্তি স্থাপন চুক্তি লঙ্ঘন করে ভারতবর্ষে নিজেদের সশস্ত্র কার্যকলাপ শুরু করেছে পাকিস্তান, সম্প্রতি এমনটাই অভিযোগ করা হল ভারতীয় গণমাধ্যমের তরফ থেকে।

একারণে সম্প্রতি ২৬শে সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) ভারত-পাক সীমান্ত ও নিয়ন্ত্রণ রেখায় সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে ভারত সরকার। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফে অভিযোগ জানানো হয়েছে যে নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রম করে পাকিস্তান থেকে ড্রোন উড়ে এসে ভারতবর্ষের অন্তর্গত পাঞ্জাবের অমৃতসরে ভারী অস্ত্র ও গোলাবারুদ ফেলে যাচ্ছে।

পাশাপাশি ভারতীয় সেনাবাহিনী ও সীমান্ত নিরাপত্তা বাহিনীর বিভিন্ন ফৌজ ও নিরাপত্তা চৌকিতে সর্বোচ্চ নজরদারিতে অবলম্বন করতে বলা হয়েছে, যাতে ভবিষ্যতে এভাবে পাক ড্রোনের অনুপ্রবেশ ঘটতে না পারে।

ভারতের সীমান্ত নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তাদের বরাতে ভারতীয় বার্তাসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, “সন্ত্রাসকে উসকে দিতে অস্ত্র ও গোলাবারুদ পাচারে পাকিস্তান নতুন এই উপায়টি বেছে নিয়েছে। কাজেই আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর ড্রোন চলাচল নজরে রাখতে আমাদের বাহিনীকে সক্রিয় করেছি।”

এপ্রসঙ্গে ২৫শে সেপ্টেম্বর (বুধবার) ভারতীয় সেনাবাহিনীর শীর্ষ কমান্ডার জানান, ভারতে অস্ত্র প্রেরণে কম সক্ষমতার ড্রোন ব্যবহার করছে প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তান। ভবিষ্যতে পাকিস্তানের কোনও ড্রোন ভারতের আকাশে ঢুকতে চাইলে গুলি করে ভূপাতিত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে খবরে জানানো হয়েছে।

এছাড়া ভারতের সামরিক গোয়েন্দারা আভাস দিয়েছেন, সীমান্ত পাড়ি দিয়ে পাকিস্তান থেকে ৫০০ সন্ত্রাসী ভারতে ঢুকে পড়তে পারে। এই উদ্দেশ্যের জেরেই সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

ভারতের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডার প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল অলক সিং ক্লে বলেন, “এতে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ও রাডার ভবিষ্যতে যে কোনো ড্রোনের সক্রিয়তা শনাক্ত করে ব্যবস্থা নিতে পারবে।”

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য