সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

সরকারী লকডাউন জারি হয়েছে, কিন্তু জানেই না মানুষ ! সকাল হতেই ভিড়

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ গোটা দেশে করোনা পরিস্থিতি খারাপ থেকে আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে । বিভিন্ন রাজ্যে ফের শুরু হয়েছে এলাকাভিত্তিক কড়া লকডাউন । কিন্তু মানুষের টনক নড়ছে কই ! সরকারী নির্দেশিকা জারি হবার পরেও পরদিন রাস্তায় ভিড় হচ্ছে । মানুষ জানাচ্ছে তারা জানেই না কড়া লকডাউন চালু হয়েছে ! ঘটনাটি কোচবিহারের ।

জানা গেছে সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় শংকিত প্রশাসন লকডাউন ঘোষণার নির্দেশ দেন কচবিহারে । কিন্তু সেই সরকারী নির্দেশ যখন কোচবিহারে পৌঁছল, রাত তখন ৯টা। পরিকল্পনা করে, সব কিছু গুছিয়ে নিয়ে প্রচারের জন্য যখন তৈরি, তখন রাত ১১ তা বেজে গেছে । গ্রামের মানুষ তখন ঘুমের অতলে তলিয়ে । ফলে সকাল হতেই ফের নিজস্ব ছন্দেই বাজার হাট খুলেছে । কারন জিজ্ঞাসা করতেই অবাক সকলে । তারা নাকি জানেনই না, এলাকায় কড়া লকডাউন চালু হয়েছে ।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে অবশ্য বেলা ১২ টার পর থেকেই নিয়ন্ত্রনের কাজ শুরু হয় । বন্ধ করে দেওয়া হয় দোকান পাট, নিয়ন্ত্রন করা হয় যান চলাচল । পরিকল্পনাহীনভাবে লকডাউন করায় হঠাৎ করেই মহা দুর্ভোগের সামনে পড়েন সাধারন মানুষ । কেন এমন হল ? প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাফাই দেওয়া হয়েছে সব গুছিয়ে মাইক বের করতে রাত গভীর হয়ে যায়।  ততক্ষণে কোচবিহারের মতো ছোট্ট শহরে বেশিরভাগ বাড়িতে বাতি নিভে গিয়েছে।সোশ্যাল নেটওয়ার্কেও প্রচার করা হয়। কিন্তু অনেকেরই বুঝতে অসুবিধা হয়েছে । 

বুধবার থেকেই কোচবিহার শহরে লকডাউন জারি করেছে রাজ্য সরকার । কিন্তু মানুষ সেটি জানতেনই না । তবে  এ সবের মধ্যেই পথে নেমে পড়েন কোচবিহারের মহকুমাশাসক সঞ্জয় পাল। তিনি পথচলতি লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন। লকডাউনের কথা জানিয়ে অনেককেই সতর্ক করেন। শুরু হয় মাইকে প্রচার। মহকুমাশাসক বলেন, ‘রাতে অনেকেই জানতে পারেননি। সকাল থেকে আমরা সবাইকে জানাতেই রাস্তায় নামি। দুপুরের পর শহর লকডাউন হয়ে যায়।’

মন্তব্য
Loading...