সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

ভারতীয় রেলের নব সংযোজন; চলন্ত ট্রেনে অপরাধ বন্ধ করতে নতুন অ্যাপ “সহযাত্রী”

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ গুগলের সাহায্যে ভারতীয় রেলের নতুন অ্যাপ চলন্ত ট্রেনে যে কোন জায়গায় যাত্রীকে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে পারবে । “সহযাত্রী” নামে যে অ্যাপ রেল চালু করতে চলেছে, তার ফলে,  ট্রেন দ্রুত গতিতে চলছে, এমন সময়ে হয়তো কোনও বিপদে পড়েছেন আপনি, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে আপনার হাতের মুঠোয় ধরা ছোট্ট ফোন ।

ভারতীয় রেলকে প্রায়শ যাত্রী নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় । অপরাধ বন্ধ করার জন্য বা যাত্রীর সুরক্ষা বজায় রাখতে হিমসিম খেতে হয় পুলিশ বা রেল নিরাপত্তা বাহিনীকে । কিন্তু এবার বিপদে পড়লে আশপাশে কোনও রেলকর্মীকে না পেলেও আপনাকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে “সহযাত্রী” । শুধু রেল যাত্রী নয়, এই অ্যাপ সাহায্য করবে পুলিশ এবং রেলের নিরাপত্তা কর্মীদেরও । রেল সুত্র থেকে জানা গেছে, এই নতুন “সহযাত্রী” অ্যানড্রয়েড অ্যাপ ও ওয়েবসাইট সাহায্য করবে  চলন্ত ট্রেনে কোনও অপরাধ ঘটলে বা যাত্রীদের কোন সমস্যার সমাধান করতে । এমনকি  এই অ্যাপ ও ওয়েবসাইট থেকে করা যাবে যে কোনও অভিযোগ ।

রেল সূত্রের খবর, “সহযাত্রী”  ওয়েবসাইট ও অ্যাপে সারা দেশের রেল-সংক্রান্ত অপরাধীদের ফোটো ও তথ্যও থাকবে । পাশাপাশি থাকবে,   ট্রেনে ডাকাতি ও চুরি  যাওয়া যাত্রীদের জিনিষ পত্রের তালিকা । এছাড়া,   হারিয়ে যাওয়া মানুষদের নাম ও তথ্য-এর পাশাপাশি  থাকছে  ট্রেনে অস্বাভাবিক ভাবে মারা যাওয়া বা কাটা পড়া পরিচয়হীন  মানুষজনের ছবি ।  ট্রেনে যাতায়াতের সময় একজন যাত্রী এই আপের সাহায্যে অনায়াসে জেনে যাবে,  ট্রেনে চলাকালীন কোন কোন অপরাধে কী আইন, কী সাজা ? অভিযোগের সাথে বিপদে পড়লে  ইসঙ্গে অভিযোগ তো দায়ের করা যাবেই, পাশাপাশি এমার্জেন্সি কল করতে পারবেন রেল কর্তৃপক্ষকে।

কিভাবে কাজ করবে এই “সহযাত্রী” ?  রেল জানিয়েছে, ওই অ্যাপে বা সাইটে কোনও যাত্রী অভিযোগ জানালে,  জিপিএস সিস্টেমের মাধ্যমে সবচেয়ে কাছের থানা ও জিআরপি লোকেশন জানিয়ে দেবে গুগল । ফলে জি আর পি বা লোকাল থানা খুব সহজেই অপরাধের স্থান চিহ্নিত করতে পারবে এবং দ্রুত অ্যাকশানে নামতে পারবে । এই পরিষেবা পেতে হলে প্রথমে দরকার একটি স্মার্ট ফোন ।  গুগলের অ্যাপ স্টোরে গিয়ে ডাউনলোড করতে হবে “সহযাত্রী” অ্যাপ । সেখানে থাকবে  সিটিজেন সার্ভিস ।এখান থেকে   অপশন পছন্দ করতে পারবেন রেল যাত্রী ।  এরপর অভিযোগ দায়ের করা হলে সরাসরি  সেই অভিযোগ প্রতিটি রেল পুলিশ থানা ও পুলিশ প্রশাসন দেখতে পাবে ।

মন্তব্য
Loading...