Mysterious Bermuda Triangle (রহস্যময় বারমুডা ট্রায়াঙ্গল) – World GK Notes

0

 Mysterious Bermuda Triangle

[World GK Notes]

 

 

There are so many places in the world that’s mystery has not been penetrated. In such a mystery, the mystery of the Atlantic Ocean’s Bermuda Triangle is a controversial issue. It is often heard that people with ships often lost their plane, and they could not be found anymore. The experiences of various people and sailors who have come here are heard. Various scientists have different opinions about this. In 1492, Christopher Columbus wrote the first issue. World GK Notes

Discussion :

The total size of the Bermuda Triangle in the Atlantic Ocean is 114 million square kilometers. This place is like a triangle, so the triangle has been added to its end. The reason of this place’s mystry is that the wireless communication and the directional compass will be directed towards the wrong direction when an aircraft or ship arrives at once. This resulted in the loss of ships or aircraft. Columbus said about his strange experience in this area that the smoke of the spot and the light of the light was visible in the sky. As a strange reason, the American Avenger torpedo disappeared into the Atlantic Ocean during a training between the bomber. After that 13 crew members of PBM Mariner went missing. In this way, many ships and aircraft accidents have occurred in this region, whose findings are not available today. Many scientists are still doing research on this topic. Let’s see if the solution is the unbroken mystery of the Bermuda Triangle. Many scientists are still doing research on this topic. Let’s see if the solution is the unbroken mystery of the Bermuda Triangle.


World GK Notes

                                      বারমুডা ট্রায়াঙ্গলের রহস্য 

[World GK Notes]

 

 

পৃথিবীতে এমন অনেক স্থান আছে যেগুলির রহস্য ভেদ করা হয়নি। এমনি কিছু রহস্যর মধ্যে আটলান্টিক মহাসাগরের বারমুডা ট্রায়াঙ্গলের রহস্য একটি বিতর্কিত বিষয়। শোনা যায় এখানে প্রায়ই জাহাজসহ মানুষ,  বিমান হঠাৎ করে হারিয়ে যায় এবং এদের আর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়না। এখানে আসা বিভিন্ন মানুষের এবং নাবিকের বিভিন্ন অভিজ্ঞতার কথা শোনা যায়। বিভিন্ন বিজ্ঞানীর এবিষয়ে বিভিন্ন মতামত। ১৪৯২ সালে খ্রিষ্টোফার কলম্বাস সর্বপ্রথম এই বিষয়ে লিখেছিলেন।World GK Notes

আলোচিত বিষয় সমূহ :

আটলান্টিক মহাসাগরের এই বারমুডা ট্রায়াঙ্গলের মোট আয়তন ১১৪ লাখ বর্গকিলোমিটার। এই জায়গাটি দেখতে অনেকটা ত্রিভুজের মতো তাই  এটির শেষে ট্রায়াঙ্গল কথাটি যুক্ত হয়েছে। এই জায়গার রহস্যর কারন হল এখানে কোনো বিমান বা জাহাজ একবার এলে তাদের বেতার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং দিক নির্ণায়ক কম্পাস ভুল দিকে নির্দেশনা দেয়। এর ফলে একসময় জাহাজ বা বিমান হারিয়ে যায়। কলম্বাস এবিষয়ে তার অদ্ভুত অভিজ্ঞতার কথা বলে জানিয়েছিলেন যে এই জায়গাটির আকাশে ধোঁয়া ও আলোর ঝলকানি দেখা যায়। এর মধ্যে একটি অদ্ভুত কারন হিসেবে জানা যায় যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাভেঞ্জার টর্পেডো বোমারু বিমানের মধ্যে একটি প্রশিক্ষণ চলাকালীন আটলান্টিক মহাসাগরে নিখোঁজ হয়ে যায়। এরপর এটিকে অনুসন্ধান করতে পাঠানো পিবিএম মেরিনার ১৩ জন ক্রু নিখোঁজ হয়ে যায়। এভাবেই অনেক জাহাজ ও বিমান দুর্ঘটনা এই অঞ্চলে ঘটেছে যার কোনটির খোঁজ আজ অব্দি পাওয়া যায়নি। বহু বিজ্ঞানীরা এ বিষয়ে আজও গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। দেখা যাক সমাধান হয়কিনা বারমুডা ট্রায়াঙ্গলের অমীমাংসীত রহস্য।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...