বাংলা রাজনীতিতে মুকুল রায় এবং সব্যসাচী সম্পর্ক অনেকটা দাদা ভাইয়ের ।  মতো বলা যেতে পারে মুকুল রায়ের হাত ধরেই তৃণমূল এসেছিলেন সব্যসাচী দত্ত । লোকসভা নির্বাচনের আগে,  গভীর রাতে মুকুল রায় সব্যসাচী দত্তর বাড়িতে গিয়ে লুচি আলুর দম খেয়ে এসেছিলেন ।  তাই নিয়ে দলের ভেতরে বিতর্ক কম হয়নি । বলা যেতে পারে,  সেখান থেকেই মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কালো তালিকায় চলে এসেছিলেন বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত ।

এবার  ভাইয়ের ভালো মন্দের কথা বিচার করে তার বাড়ির দিকে রওনা দিলেন রাজ্য বিজেপির চাণক্য মুকুল রায় ।  তার প্রধান বক্তব্য ছিল, ” একজন দাদা  হিসেবে ভাই এর ভালো মন্দ দেখা তার কর্তব্য” ।

মুকুল রায় আরও  বলেন,  “অন্য দলের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে কথা বলা আমার উচিত নয় । কিন্তু সব্যসাচী আমার ভাইয়ের মতো । ওর সঙ্গে অন্যায় করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । এভাবে কাউকে মেয়র পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া যায়না । সব্যসাচীকে সরিয়ে যেভাবে ডেপুটি মেয়রকে পুরসভা চালাতে বলা হচ্ছে,  তা সংবিধান বিরোধী । কোন পদ থেকে  কাউকে সরাতে গেলে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে হয়।,  সেই অনাস্থা প্রস্তাবের উপর ভোটাভুটি করতে হয়” ।

তবে দুদিন আগে বিদ্যুৎ ভবনে বিদ্যুৎ ভবন এর কর্মচারীদের নিয়ে যে আন্দোলন প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন সব্যসাচী দত্ত সেটা ছিল সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন । সব্যসাচী অবশ্য নিজের সাফাই গাইতে গিয়ে বলেছেন,  মমতা ব্যানার্জিও সরকারবিরোধী সিঙ্গুর আন্দোলনে নেমেছিলেন ।  তাহলে আমার বেলায় দোষ কেন ?”

ভাইয়ের তথা সব্যসাচীর  সমর্থনে মুকুল রায় বলেন,  “সব্যসাচী তো মমতা দেখানো পথে রাজনীতি করছিল । লোকসভা ভোটে উনি ত ওনার  রাজারহাট বিধানসভায় তৃণমূলকে জিতেছেন । বরং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উনার পাড়ায়  হেরেছেন । তাছাড়া তৃণমূলের 121 জন বিধায়ক যে নিজের নিজের এলাকা হেরেছেন তাদের অনেকেই লোকসভা ভোটে বিজেপিকে সাহায্য করেছেন । তাহলে সব্যসাচী বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে কেন ? ”  এভাবেই মুখ্যমন্ত্রী কে সমালোচনা করে সব্যসাচীর পাশে দাঁড়ালেন মুকুল রায় । পাশাপাশি ভাইকে নিজের দলে টানার জন্য তিনি যে হাত বাড়িয়ে আছেন সেটাও পরিষ্কার বুঝিয়ে দিলেন তিনি ।

Kajal Paul is one of the Co-Founder and writer at BongDunia. He has previously worked with some publishers and also with some organizations. He has completed Graduation on Political Science from Calcutta University and also has experience in News Media Industry.

Leave A Reply