করোনা মোকাবিলায় এবার মুকেশ আম্বানি, একের পর এক অভিনব উদ্যোগ রিলায়েন্সের

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ প্রতিদিনই করোনা সংক্রমণে ভারতের পরিস্থিতি আরও জটিল আঁকার ধারন করছে । লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রামিত হবার খবর । যদিও স্টেজ-২ পর্যায়ে রয়েছে করোনা পরিস্থিতি, কিন্তু বাকি বিশ্বের দিকে তাকালে আতঙ্ক আরও চেপে বসছে । ঠিক এই রকম অবস্থায় দেশের জনগণের পাশে দাঁড়ালেন বড় বেসরকারি সংস্থার কর্ণধার মুকেশ আম্বানি । একের পর এক পরিকল্পনা করে চলেছেন করোনা মোকাবিলা করার জন্য ।

গোটা দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন । অচল হয়ে পড়েছে যাবতীয় পরিকাঠামো । মানুষ বাধ্য হয়েছে স্বেচ্ছায় গৃহবন্দী হয়ে থাকতে । এই মুহূর্তে পরিসংখ্যান জানাচ্ছে  হুহু করে বাড়ছে করোনা  আক্রান্তের সংখ্যা । গত ৩ দিনে সবচেয়ে বেশি মানুষের শরীরে করোনা সংক্রমণ হয়ে এখন অর্ধ হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে । দেশের এহেন সঙ্কটজনক পরিস্থিতিতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল মুকেশ অম্বানির সংস্থা রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিস ।

মুকেশ আম্বানি ভারতে এই প্রথম করোনার চিকিৎসার জন্য তৈরি করে ফেলল  রিলায়েন্সের করোনা-হাসপাতাল । মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে  দেশের প্রথম এই করোনা হাসপাতাল তৈরি করেছে তারা । রিলায়েন্সের এই করোনা হাসপাতালে একসাথে ১০০ জন করোনা আক্রান্তের চিকিৎসা করা সম্ভব হবে । আজ সোমবার বানিজ্য নগরী মুম্বইতে উদ্বোধন হল রিলায়েন্সের এই করোনা হাসপাতালের ।

মুকেশ আম্বানি করোনা আক্রান্তের চিকিৎসার কথা শুধু ভাবেন নি ।  পাশাপাশি তিনি গোটা দেশের করোনা বিরুদ্ধে যুদ্ধে রত  চিকিত্‍সক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের  জন্যেও উদ্যোগী রিলায়েন্স ।মহারাষ্ট্রের লোধিভালিতে আইসোলেশন তৈরি করল রিলায়েন্স । এছাড়া করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে যেখানে মাস্কের অভাব দেখা দিচ্ছে সেখানে সেই অভাব পূর্ণ করার জন্য প্রতিদিন ১০ লক্ষ ফেস মাস্ক তৈরির পরিকল্পনা করেছে মুকেশ আম্বানির এই সংস্থা ।

এছাড়াও মানুষ ঘর বন্দী থাকার কারনে আয় রোজগার বন্ধ । দেশের এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে যারা করোনা আক্রান্ত নন, অথচ দিন কাটাতে হচ্ছে অনাহারে, সেই সকল দরিদ্র মানুষের জন্য ব্যবস্থা করেছে বিনামূল্যে দুবেলা খাবার । অন্য দিকে করোনা আক্রান্তদের সেবায় এবং চিকিৎসায় নিয়জিত বাহনের জন্য ঘোষণা করেছে  ফ্রি ফুয়েল সরবরাহের কথা ।

দেশের এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে মুকেশ আম্বানি এবংতার সংস্থা রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিস যে উদ্যোগ নিয়েছে তা যথেষ্ট কাজে আসবে সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই । মুকেশ আম্বানির মত যদি আরও বড় বড় বে সরকারী সংস্থা এগিয়ে আসে, তাহলে আগামী দিনে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই আরও সহজতর হবে ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More