আসামের এনআরসি তালিকায় আত্মহত্যার অধিকাংশ হিন্দু

0

আসাম সরকারের প্রকাশিত নাগরিক পঞ্জি ১৯ লাখ লোক বাদ মানুষ মানুষের কষ্ট বেড়েই চলছে। ভারত একটি বাঙ্গালি হিন্দুদের দল এনআরসি তালিকার পর গ্রাম পরিদর্শনে যান। কামরুপ জেলায় পাব মালয়বারি গ্রামের বাসিন্দারা এখন সরকারের দিকে না তাকিয়ে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করছেন। ঈশ্বর যেন একটি পথ দেখান।

মন্দিরে প্রার্থনা করে নিজেদের মধ্যে কষ্ট ভাগ করে নিচ্ছেন। প্রার্থনা করছেন। কর্তৃপক্ষে কাছে যখন গিয়ে কাজ হচ্ছে না তখন ভরসা ঈশ্বর। একটি পরিবারের আট জন ব্যক্তির একজনের নাম তালিকা না উঠায় কর্তৃপক্ষের কাছে অনেকবার গিয়েছেন তবু কাজ হচ্ছে না। সমগ্র গ্রাম যা ঘটেছে তা নিয়ে সকলের মন খারাপ । একমাত্র বিকল্প হিসেবে তার প্রার্থনা নিয়ে চলে যাচ্ছেন । গ্রামবাসী বলছেন আমরা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সঠিক প্রতিক্রিয়া পাই না । তাদের সমস্যা কি তা আমরা বুঝতে পারি না । মানুষ হয়রানির শিকার হয় এবং অসুস্থ হয়ে পড়ে।

আসামের নাগরিক পঞ্জিতে যাদের নাম উঠেনি তাদের অনেকেই আত্মহননের পথ বেছে নিচ্ছেন। এ পর্যন্ত আসামে ৪৪ জন আত্মহত্যা করেছে যার ৩৯ জনই বাঙ্গালি হিন্দু। বাঙ্গালি হিন্দুদের আত্মহত্যা কি কোন টার্গেট এ নিয়ে কংগ্রেস প্রশ্ন তুলেছেন। কংগ্রেস মনে করে সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্ববধায়নে নাগরিক পঞ্জির নবায়ন করা হলেও আদালতের সব নির্দেশ পুরোপুরি মানা হয়নি। নাগরিক পঞ্জি তৈরি শুরু থেকে আসামের বাঙ্গালিদের বিশেষ করে হিন্দুদের চরম নির্যাতনের মুখোমুখি পড়তে হচ্ছে। বারবার তাদের অগ্নিপরীক্ষা দিতে হচ্ছে। অনেকেই মনে করছে এটা কি বাঙ্গালি হিন্দুদের হয়রানি করার পন্থা।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...