সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

শুধুমাত্র উত্তর ২৪ পরগনাতেই চারশ’র বেশি কনটেন্টমেন্ট জোন, লকডাউন হবে, না শাটডাউন !

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটা থেকেই কড়া লকডাউন চালু হতে চলেছে । করোনা পরিস্থিতি বিচার করে কনটেন্টমেন্ট জোনগুলিতে কড়া লকডাউন চালু করার পথে হাঁটছে রাজ্য প্রশাসন । যে নিয়মগুলি মেনে চলার কথা বলা হচ্ছে তাতে ধিরে ধিরে কড়া লকডাউন থেকে কনটেন্টমেন্ট জোনগুলি শাটডাউন করে দিতে পারে সরকার এমনটাই অনেকে মনে করছে । এদিকে শুধু মাত্র উত্তর ২৪ পরগনা জেলাতেই রয়েছে চারশ’র বেশি কনটেন্টমেন্ট জোন ।

রাজ্যের সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনাতে । যেভাবে এই দুই জেলায় করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে যাচ্ছে তাতে কড়া লকডাউন বা শাটডাউন না করলে কোনভাবেই পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যাবে না । এই মুহূর্তে   রাজ্যের মধ্যে যে দুটি-তিনটি জেলা নিয়ে মাথাব্যাথা প্রশাসনের তার মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য উত্তর ২৪ পরগণা। প্রশাসন থেকে প্রতিটি থানায় করোনা হটস্পটগুলি চেয়ে পাঠানো হয়েছে । তাতে উত্তর ২৪ পরগনার সংখ্যা অনেক বেশি ।

আনলক পর্যায়ে রাজ্য প্রশাসন খুব দ্রুত লকডাউনে শিথিলতা নিয়ে এসেছিল । তার পর থেকেই কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় হু হু করে বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ । এই মুহূর্তে যা পরিস্থিতি তাতে  অচিরেই কলকাতাকে টেক্কা দিয়ে প্রথম স্থানে চলে যাওয়া সম্ভাবনা প্রবল উত্তর ২৪ পরগনা জেলার। গত কয়েকদিনে হু-হু করে বেড়েছে এই জেলার আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

এই মুহূর্তে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ না করা হলেও সবচেয়ে বেশি কনটেন্টমেন্ট জোন যে পৌর এলাকাগুলিতে রয়েছে সেগুলি হল বিধাননগর, পানিহাটি, কামারহাটি, বসিরহাট, বরানগর, বারাসাত, ভাটপাড়া, উত্তর দমদম ও দক্ষিণ দমদম। তবে সেই তুলনায় পঞ্চায়েত এলাকায় কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা অনেকটাই কম। ব্যারাকপুর-২, দেগঙ্গা, বসিরহাট-১ ও ২ ছাড়া বাকি পঞ্চায়েতে সেরকম বেশি কনটেনমেন্ট জোন নেই।এর মধ্যে সবচেয়ে বিধাননগর ও নিউটাউন মিলিয়ে কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা প্রায় দেড়শো।

কাল থেকে কড়া লকডাউন চালু হতে চলেছে জেলার এই সাড়ে চারশো কনটেনমেন্ট জোনে। সরকারি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী কনটেনমেন্ট জোনের নতুন সংজ্ঞা তৈরি করেছে রাজ্য সরকার। বর্তমান কনটেনমেন্ট জোন, বাফার জোন এমনকি গ্রিন জোনের কিছুটা নিয়ে তৈরি করা হয়েছে এই বিশেষ কনটেনমেন্ট জোন। সেখানে যে যে নিয়মগুলি মানার কথা বলা হবে টা আসলে শাটডাউনের নামান্তর । ইতিমধ্যে ফের সাধারন মানুষের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনার হিড়িক পড়ে গেছে । দোকানে দোকানে পড়ছে দীর্ঘ লাইন ।

মন্তব্য
Loading...