মেয়ে সানার পোস্ট হালকা করে দেখার আর্জি জানিয়ে মহারাজ কিসের ইঙ্গিত দিতে চাইছেন

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ  কন্যা সানা গাঙ্গুলির টুইটারে করা পোস্ট ঘিরে আলোচনা শুরু হতেই বাবা সৌরভ গাঙ্গুলি মেয়েকে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু থেকে সরাতে তৎপর হলেন । মেয়ে সানার করা পোস্টকে হালকা ভাবে নেওয়ার আর্জি জানিয়ে সৌরভ জানিয়েছেনঁ তাঁর মেয়ে সানা রীতিমত ছোট, এখনও স্কুলের গণ্ডি পার হয়নি । কিন্তু এরপরেই সানা গাঙ্গুলি যতটা না প্রশংসিত হয়েছিলেন, তার চেয়ে বেশী সমালোচিত হচ্ছেন মহারাজ ।

লেখক খুশবন্ত সিংয়ের ‘দ্য এন্ড অফ ইন্ডিয়া’ বইয়ের একটি অংশ শেয়ার করেছেন সৌরভ কন্যা সানা গাঙ্গুলি । সেখানে খুশবন্ত সিংহের লেখার ওই অংশে বলা হয়েছে, বাম মনস্ক ঐতিহাসিকদের ইতিমধ্যেই নিশানা করেছে সঙ্ঘ পরিবার, আপনিও সেই দলের বাইরে পড়বেন না। এছাড়াও যাঁরা বছরের কোনও বিশেষ উৎসবে মাংস খান, মদ্যপান করেন, বিদেশি সিনেমা দেখেন, আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে বিশ্বাস না রেখে অ্যালোপ্যাথির সাহায্য নিচ্ছেন তাঁদের বিপদ আসন্ন। জয় শ্রী রাম না বলে যাঁরা হাত মিলিয়ে, বা চুমু খেয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন, তাঁরা যদি ভেবে থাকেন হিন্দু বলে বেঁচে গিয়েছেন; তাহলে মূর্খের স্বর্গে বাস করছেন। ভারতকে বাঁচাতে হলে আমাদের এখনই বোঝা উচিত যে আমরা কেউ নিরাপদে নেই।

এখানে, সানা গাঙ্গুলি খুশবন্ত সিংয়ের ভাষায় সানা বলতে চেয়েছেন, আজ যাঁরা ভাবছেন, আমরা তো এদেশের হিন্দু আমাদের আবার কী বিপদ তাঁদেরও বিপদ আসবে। যা সব সমস্যা তাতো মুসলিমদের। মোটেও ভাববেন না বেঁচে গিয়েছেন। সঙ্ঘপরিবার পরের ধাপে মেয়েরা যাঁরা স্কার্ট পরেন, তাঁরা নীতিপুলিশের দ্বারা আক্রান্ত হতে পারেন। হয়তো দাঁতের মাজনের বদলে টুথপেস্ট ব্যবহারের কারণে সঙ্ঘ পরিবার আপনার জন্য শাস্তি বরাদ্দ করেছেন।

এরপরেই সানা গাঙ্গুলির পোস্ট ঘিরে প্রশংসা শুরু হয়ে যায় নেটিজনদের মধ্যে । কিন্তু বিতর্ক বাঁধে সৌরভ গাঙ্গুলির পোস্ট নিয়ে । সানার মন্তব্যকে হালকা করে দেখার জন্য তিনি মেয়ের স্কুল জীবনের একটি ছবি পোস্ট করেন এবং লেখেন “১৪ বছরের স্কুল জীবনের শেষ রাতটা স্কুলেই কাটিয়েছে ওরা । এটা একটা দারুণ স্মৃতি হয়ে থাকবে। স্কুল জীবনটা ছিল দারুণ মজার।”

শুধু তাই নয়, তিনি সানাকে এসবের বাইরে রাখার অনু রোধ করেছেন ।

সৌরভ গাঙ্গুলির করা এই পোস্ট দুটিকে ঘিরে নেটিজনদের মধ্যে শুরু হয়ে যায় সমালোচনার ঝড় । মেয়ে সানার পোস্টে সানাকে প্রশংসা করেছিলেন নেটিজনরা, সেখানে সৌরভ গাঙ্গুলির পোস্ট ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক ।

অনেকের মতে, সৌরভ বোঝাতে চেয়েছেন, তাঁর কন্যা এখনও স্কুলের গণ্ডি পেরোয়নি। কিন্তু সানা গত নভেম্বরের ৩ তারিখ ১৮ বছর বয়সেক চৌকাঠ পেরিয়ে গিয়েছেন। এখন তিনি প্রাপ্তবয়স্কা। ফলে সৌরভের এই জোড়া টুইটের পরে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ফেসবুক টুইটারে ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...