চোরাচালান জগতে মাদকদ্রব্য পাচার একটা বিশাল লাভজনক ব্যবসা । প্রশাসন যতই নজরদারি চালাক না কেন, কোন ভাবেই এই ব্যবসা বন্ধ করা যায় না । আইন যত কঠিন হোক না কেন এবং পাহারা যতই আঁটসাঁট হোক না কেন, তার মাঝেই মাদকদ্রব্য চোরাচালান চলতে থাকে ।

অনেক দিন ধরে পুলিশের কাছে বেশ কিছু সূত্র আসছিল যে আটারি সীমান্ত থেকে মাদক পাচার হচ্ছে । কিন্তু নিরেট প্রমাণ ছাড়া প্রশাসন কিছুই করতে পারছিল না । এই মাদক পাচার কারীদের সাথে এবং মাদকের সাথে পাকিস্তানের প্রত্যক্ষ যোগ রয়েছে এটা নিশ্চিত হলেও কোন সরাসরি প্রমাণ প্রশাসনের হাতে আসেনি ।

কিন্তু এবারে ফল মিলল । হাতেনাতে ধরা পরল হেরোইনসহ প্রচুর পরিমাণে মাদকদ্রব্য । গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গত শনিবার রাত্রে আটারি সীমান্তে বেশ কয়েকটি লরি আটকায় শুল্ক দপ্তর । সার্চ করে ৫৩২ কেজি হেরোইন উদ্ধার করা হয় । যার বর্তমান বাজার মূল্য আনুমানিক ২৭০০ কোটি টাকা ।

সাম্প্রতিক কালের মধ্যে এত বড় সাফল্য শুল্ক দফতর যে পায়নি সেটা এক কথায় বলা যেতে পারে । শুল্ক দফতরের এক অফিসার জানিয়েছেন নুনের চালান ছিল লরিগুলিতে । কিন্তু তল্লাশি করে সেখান ৬০০-র বেশি ব্যাগ পাওয়া যায় । ওই ব্যাগগুলি থেকেই প্রায় ৫৩২ কেজি মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয় । শুল্ক দফতরের অফিসাররা মাদকদ্রব্য গুলি বাজেয়াপ্ত করেছে ।

এখন আটককৃত ট্রাক গুলির ড্রাইভারদের জোরকদমে জেরা চলছে । পাচার চক্রের মূল অভিযুক্ত এখনো অধরা থাকলেও ড্রাইভার দের জেরা করে তাদের হদিশ পাওয়া যায় কিনা তার চেষ্টা চলছে । উল্লেখ্য পুলওয়ামা ঘটনার পর ভারতের সাথে পাকিস্তানের সম্পর্ক একটা তিক্ততার পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে । পাকিস্তানের সাথে ব্যবসা-বাণিজ্যে লাগাম টানলেও চোরাচালানি বা চোরাপথে নিষিদ্ধ মাদক পাকিস্তান থেকে ভারতে পাচার বন্ধ করা যায়নি কোনোভাবেই সেটা প্রমাণ হল ।

Kajal Paul is one of the Co-Founder and writer at BongDunia. He has previously worked with some publishers and also with some organizations. He has completed Graduation on Political Science from Calcutta University and also has experience in News Media Industry.

Leave A Reply