সুন্দরবনের কাছে পল্লীবিদ্যুতের উপকেন্দ্র উদ্ভোধন

0

বিদ্যুতের চাহিদার সাথে পল্লী বিদ্যুত কোম্পানী তার বিতরণ লাইন ও উপকেন্দ্রের আধুনিকায়নের কাজ অব্যহত রেখেছে। ৩ আগস্ট শনিবার দুপুরে উপজেলার দিগরাজে ১০ এমভিএ ৩৩/১১ কেভি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের উদ্বোধন করেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শাহাদৎ হোসেন, বাগেরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার জাকির হোসেন, নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রহিম ও সহকারী ম্যানেজার অঞ্জন কুমার সরকার প্রমুখ।

বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের উদ্বোধন শেষে সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোটের আমলে কোন বিদ্যুৎ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়নি। শেখ হাসিনা সরকারই দেশের বিদ্যুতের চাহিদা মিটিয়েছে। যতদিন তিনি প্রধানমন্ত্রী আছেন ততদিন দেশ উন্নত হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই সকল অসম্পন্ন কাজ আমরা সম্পন্ন করব।

দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের উন্নতির জন্য আগামী বছরই রামপালের কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে উৎপাদিত ১৩’শ ২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে যুক্ত হবে। এক সময়ে যে সিষ্টেম লস হতো, বিদ্যুৎ গেলে আতংকে থাকতে হতো, কয় ঘন্টা পরে বিদ্যুৎ আসে এই ভেবে। কিন্তু এখন বিদ্যুৎ নিয়ে কোন সমস্যা নাই, পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ আমাদের আছে।

উল্লেখ্য কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র সুন্দরবনের কাছে হওয়ায় বিভিন্ন সংগঠন এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের বিরোধীতা করে আসছে। তাদের মতে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন হলে সুন্দরবন ক্ষতি হবে। ১৯৯৭ সালে সুন্দরবনকে ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের তালিকাভুক্ত করে। ২০১৯ সালে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত কয়েকটি স্থানকে ঝুকিঁপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করে তার মধ্যে প্রথমেই রয়েছে বাংলাদেশের সুন্দরবন।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...