সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

সংস্থা যদি টিকটক কেনে, তাহলে সরাসরি আন্দোলনে নামবেন মাইক্রোসফট কর্মীরা !

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ জনপ্রিয় স্বল্প মেয়াদের অ্যাপ টিকটক ভারতে নিষিদ্ধ হবার পর সংস্থার কপালে যেন শনির দশা লেগেছে । একের পর এক দেশ টিকটকের প্রতি অনীহা প্রকাশ করছে । ইতিমধ্যে  টিকটক যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।তবে শর্ত ছিল যদি কোন আমেরিকান সংস্থা দায়িত্ব নেয় বা কিনে নেয় তাহলে সেদেশে টিকটক চালু করা যাবে । শর্ত মেনে মাইক্রোসফট আগ্রহ দেখালেও তার কর্মীরা রাজি হচ্ছেন না ।

টিকটক নিয়ে গোটা বিশ্বে তুমুল আলোচনা চলছে। ভারতের পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্র্যাম্প আমেরিকায় টিকটক ব্যান ঘোষণা করেছেন । অবশ্য তিনি এও বলেছেন, হয় টিকটক যুক্তরাষ্ট্রের কোনো কোম্পানিকে কিনে নিতে হবে, নয়তো তার দেশ থেকে ব্যাবসা গোটাতে হবে। ট্রাম্পের বক্তব্যের পর আগ্রহ দেখিয়েছে মার্কিন টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট। সবাই ধারণা করছে, হয়তো শেষ পর্যন্ত মাইক্রোসফট কিনেই নেবে টিকটক।কিন্তু  ভেতরের খবর হচ্ছে, টিকটক কেনার আগ্রহের কারণে বেজায় চটেছে মাইক্রোসফটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

মাইক্রোসফটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা টিকটক কেনার আগ্রহকে অনৈতিক বলে উল্লেখ করেছেন। তারা যুক্তি দেখিয়েছেন,  টিকটক নিয়ে বিভিন্ন দেশে অনেক বিতর্ক আছে। এতে মানুষ যে ধরনের ভিডিও বা কনটেন্ট ছাড়ে তা কতটা মানুষের উপকারে লাগে সেটা নিয়েও ভেবে দেখা উচিত বলে তাদের মন্তব্য। তাদের অভিযোগ, টিকটক মানুষের ভালোর চেয়ে ক্ষতি ডেকে আনে বেশি। সঠিকের চেয়ে ভুল তথ্য ছড়ায় বেশি। এবং মানুষকে সৃষ্টিশীল কাজে মনোনিবেশ করানোর চেয়ে ‘সস্তায় সেলিব্রেটি’ হবার পথ খুঁজতে উসকানি দেয়। তাই মাইক্রোসফটের মতো সৃষ্টিশীল এবং অভিজাত কোম্পানির জন্য টিকটকের মতো ‘ন্যাকামি’ করার অ্যাপ কেনা অসম্মানের।

এই বিষয়ে মাইক্রোসফট কর্মীরা জানিয়েছেন, তাদের মতামত উপেক্ষা করে কোম্পানি যদি টিকটক কিনতে চান তাহলে   তারা আন্দোলনেও যেতে পারে, এমন ইঙ্গিত দিয়েছে। ইতিমধ্যে কোম্পানিটির কর্মীদের মধ্যে একটি ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত  হয়েছে। সেখানে ৬৩ শতাংশ কর্মী বলেছে তারা টিকটককে এই কোম্পানির অধীনে দেখতে চাননা।অবশ্য মাইক্রোসফটের হাতে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় আছে টিকটক কেনার জন্য।

এদিকে টিকটক ভারতে তাদের ব্যবসা ফিরিয়ে আনার জন্য রিলায়েন্সের সাথে আলোচনা করতে আগ্রহী হয়েছে । সম্প্রতি রিলায়েন্সের কর্ণধর মুকেশ আম্বানি অনলাইনের দিকে তাঁর ব্যবসা বাড়াবার আগ্রহ দেখাচ্ছেন । তাই অনেকেই আশা করছেন রিলায়েন্সের সাথে টিকটকের আলোচনা ফলপ্রসু হলেও হতে পারে ।

মন্তব্য
Loading...