চলন্ত বাসে ধড় থেকে আলাদা হয়ে গেল মাথা; চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকাজুড়ে

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: জিয়াগঞ্জ -বহরমপুর বাস রুটে আজ ঘটে গেল এক মর্মান্তিক বাস দুর্ঘটনা । ভানু মণ্ডল নামে একজন তরুণী চলন্ত বাসে জানলা দিয়ে মাথা বের করে বমি করতে গিয়ে ইলেকট্রিক পোলের ধাক্কা খায় এবং সেই ধাক্কায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে । ভানু মণ্ডলের বাড়ি  মুর্শিদাবাদ জেলার জিয়াগঞ্জে ।এই দুর্ঘটনার ফলে এলাকায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ।

জানা গেছে মৃত ভানু মণ্ডল পেশায় ছিলেন একজন ফল বিক্রেতা । লালবাগে তিনি প্রতিদিন ফল বিক্রি করতেন । বাড়ি থেকে প্রতিদিন সকালে বাসে করেই জিয়াগঞ্জ থেকে লালবাগ আসতেন তিনি।প্রতি দিনের মত রবিবারও জিয়াগঞ্জ থেকে বহরমপুরগামী একটি বেসরকারি বাসে ওঠেন ভানু এবং বাসের জানালার ধারে সীট পান । বাসের অন্য যাত্রীরা জানিয়েছেন, লালবাগে আসার পথে নাকুরতলার আগেই হটাত করে তাঁর শরীর খারাপ শুরু হয়। তারপরেই চলন্ত বাসের জানলা দিয়ে বাইরে মাথা বের করে বমি করতে থাকেন তিনি। এমন সময় রাস্তার  পাশের একটি ইলেকট্রিক পোলে ধাক্কা লাগে ভানুর মাথা । চলন্ত বাস থেকে পোস্টের সাথে ধাক্কা লাগায় ঘটনাস্থলেই ধড় থেকে মাথা আলাদা হয়ে গিয়ে রাস্তায় ছিটকে  পরে । ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করে শিউরে ওঠেন বাসের ভিতরের যাত্রীরা ।  সঙ্গে সঙ্গে চিৎকার করে ওঠেন বাসযাত্রীরা । চারদিকে রক্তে ভেসে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ভানুর। বাসচালক বাস থামাতেই  উত্তেজিত জনতা বাসের চালককে ধরে মারধর শুরু করে। কোনও রকমে সে পালিয়ে যায় ঘটনাস্থল থেকে । মুহুতের মধ্যে দুর্ঘটনার জায়গায় ভিড় জমে যায় । ঘটনা স্থলে চাঞ্চল্য শুরু হয় । এলাকায় ব্যাপক যানজট তৈরি হয় । খবর পেয়ে সেখানে যায় লালবাগ থানার পুলিশ । পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে ভানুর দেহ নিয়ে লালবাগ হাসপাতালে ।

যাত্রী ও স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ,  চালকের গাফিলতির জন্য মৃত্যু হয়েছে ভানু মণ্ডলের।তারা জানায় উক্ত এলাকায় রাস্তা বেশী চওড়া নয় । কিন্তু এলাকায় বাসগুলির মধ্যে রেষারেষি হয়ে থাকে ।তার  মধ্যেই বেশ জোরে বাস চালান ড্রাইভাররা । ফলে হামেশায় ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটে । বাসটিকে আটক করেছে পুলিশ। তার মালিককে খবর দেওয়া হয়েছে। চালকের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...