অবিবাহিত কাপলদের জন্য দারুণ খবর, এবার যেকোনো হোটেলে তাদের একসাথে থাকাকে আইনত স্বীকৃতি দিল কেন্দ্র

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ আপনিকি আবিবাহিত এবং আপনার কি আছে কোনো প্রেমিক বা প্রেমিকা? এবং কিছুতেই কথাও একসাথে বেড়াতে বা ঘুরতে যেতে পারছেন না? তবে আর চিন্তা নেই। সব চিন্তার অবসান ঘটিয়ে অবিবাহিত যুগলদের একসাথে হোটেল রুমে থাকার স্বীকৃতি দিল হাইকোর্ট।

বর্তমানে একটার পর একটা যুগান্তকারী রায় দিচ্ছে হাইকোর্ট। এবারে যেন রায়টা বেরিয়েছে প্রেমিক প্রেমিকাদের জন্য। এতদিন অবিবাহিত যুগলদের হোটেল রুমে একসাথে থাকা কিংবা কোনও বাড়ি বা অ্যাপার্টমেন্ট শেয়ার করা ছিল আইনত অপরাধ। ফলে যেসব প্রেমিক যুগল এতদিন লিভ-ইন রিলেশানশিপে ছিলেন তাদের পক্ষে বাড়ি কেনা বা ভারা পাওয়া ছিল যেন ঝকমারি। কেউই তাদেরকে বাসা ভারা যেমন দিতে চাইত না, তেমনই কোনও হোটেললে তারা থাকতে চাইলে অবৈধ বলে স্বীকৃতি দিতনা।

কিছুদিন আগেই অবিবাহিত যুগলকে একসাথে থাকার অপরাধে কোয়েম্বাটুরে একটি লজ রাতারাতি সিল করে দেওয়া হয়েছিল। লজের মালিকের বিরুদ্ধে আনা হয়েছিল মধুচক্রের অভিযোগ। সিপিআইএম এর মহিলা সংগঠনের নেত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে মালিককে রাতারাতি আটক করে প্রশাসন এবং লজকে একেবারে সিল করে দেওয়া হয়। এছাড়াও আটক করা হয় সেই লজের যুবক যুবতীদের।

এই অভিযোগের বিপক্ষে আদালতে মামলা দায়ের করে মালিক পক্ষ। এবং দীর্ঘদিনের শুনানির পর হাইকোর্টের রায় আসে লজ মালিকের পক্ষে। কোর্ট অবিবাহিত দম্পতিদের যেকোনো হোটেলে একসাথে থাকার পক্ষে রায় দিয়েছে। এছাড়াও কোর্টের রায় হল, যে, কোনও অবিবাহিত যুগলকে একসাথে কোনও হোটেল রুম বা লজে থাকতে দেওয়ার অপরাধে কখনও কোনও হোটেল বা লজ সিল হতে পারেনা।

এছাড়াও বিচারপতি এমএস রমেশ তাঁর রায় দিয়ে বলেন যে, ” দুজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি যদি লিভ-ইন সম্পর্কে থাকেন তা কোনও ভাবেই বে আইনি নয়। একইভাবে অবিবাহিত যুগলদের কোনও হোটেলের ঘরে একসাথে থাকা ফৌজদারি অপরাধ হতে পারে না”। দেশে এমন কোনও আইন নেই বলে বিচারপতি জানান। ফলে এই খবরটি যেমন অবিবাহিত যুগলদের জন্য আনন্দের তেমনই হোটেল এবং লজ মালিকদের জন্যও স্বস্তিদায়ক।

 

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...