দীর্ঘদিন গৃহবন্দি রাখার পর গ্রেফতার করা হয় কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহ’কে

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: সম্প্রতি ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে বিতর্কিত পাবলিক সেফটি অ্যাক্টের দ্বারা উপত্যকার সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহকে গ্রেফতার করে কাশ্মীরী প্রশাসন।

সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, চলতি বছর ২০১৯ এর বিগত ৫ই আগস্ট তারিখ থেকে কাশ্মীরের এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ’কে গৃহবন্দি রাখা হয়েছিলো। এরপর অবশেষে কোনপ্রকার ঘোষণা ছাড়াই আচমকা গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। দেশটির বিতর্কিত পাবলিক সেক্টর অ্যাক্ট দ্বারা যেকোনো ব্যক্তিকে অভিযোগ ছাড়াই দুই বছরের বেশি সময় ধরে আটকে রাখা যায়।

বিগত ৫ই আগস্ট তারিখ থেকে ফারুক আব্দুল্লাহ কাশ্মীরী প্রশাসন দ্বারা গৃহবন্দি রয়েছেন। সম্প্রতি এর বিরোধিতা করে ভারতবর্ষের শীর্ষ আদালত তথা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন তামিলনাড়ুর এমডিএমকে নেতা ভাইকো। এরপর সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি এস এ বোবদে এবং বিচারপতি এস এ নাজিরের বেঞ্চে শুনানি শুরু হলে, ১৬ই সেপ্টেম্বর (সোমবার) কেন্দ্র ও জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসনকে এ বিষয়ে যুক্তিসম্মত কারণ দেখানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

এপ্রসঙ্গে কাশ্মীর পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা‌ মুনির খান নিশ্চিত করে জানান, সোমবার রাজধানী শ্রীনগরে ফারুক আব্দুল্লাহ’র নিজের বাসভবন থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, তাকে কতদিন গ্রেফতার রাখা হবে সেবিষয়ে গঠিত একটি কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে।

এই ঘটনার পর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বিতর্কিত পাবলিক সেফটি আইনকে ‘নীতিহীন আইন’ বলে মন্তব্য করেছে। অপরদিকে আরও কিছু মানবাধিকার সংস্থা বলছে, বিরোধীদের কণ্ঠরোধ এবং মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা, স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহীতা নষ্ট করতেই ভারত সরকার এই আইনের অপব্যবহার করছে।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...