অবশেষে বিচার পেলো নির্ভয়ার পরিবার; দোষীদের ফাঁসির নির্দেশ দিল সুপ্রিমকোর্ট

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ দেশ জুড়ে টালমাটাল পরিস্থিতির মধ্যেই সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে এলো এই সময়ের সবচেয়ে বড় খবর। অবশেষে নির্ভয়া মামলার দোষী সাব্যস্ত হওয়া ধর্ষক অক্ষয় কুমার সিং এর ফাঁসি রদের আর্জি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। আদালতের মতে আগের রায় একেবারে সঠিক রায় ছিল। যা পরিবর্তনের কোনও কারণ নেই।

দীর্ঘ সাত বছর ধরে চলছে এই নির্ভয়ার মামলা। ২০১২ সালে ঘটা এই জঘন্য ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয় ৬ জন। তার মধ্যে ১ জন তিহার জেলেই আত্মহত্যা করে এবং ১ জন বয়স কম থাকায় সংশোধনাগারে যায় এবং বাকি ৪ জনের ফাঁসির নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের কেছে তাদের পরিবার দ্বারস্থ হয় ফাঁসি রদের জন্য। কিন্তু দীর্ঘ ৭ বছর ধরে চলে আসা এই মামলা প্রায় শেষের দিকে বুধবার সকালে বিচারপতি অশোক ভূষণ, এ এস বোপান্না, এবং আর ভানুমতীর বেঞ্চ মামলার শুনানি শুরু করে এবং আসামীর প্রাণ ভিক্ষার আর্জি নাকচ করে দেয়।

নির্ভয়া

এই রায়ের বিরুদ্ধে অক্ষয় সিং এর ফাঁসির বিরোধিতা করে এ পি সিংহ বলেন যে, ” এ দেশ থেকে ফাঁসি তুলে দেওয়া উচিৎ। কারণ এতে অপরাধীকে মেরে ফেলা গেলেও অপরাধ শেষ করা যায় না।” তিনি আরও বলেন, ” মৃত্যুর আগে নিজের প্রথম বয়ানে অভিযুক্তদের কারুর নাম পর্যন্ত বলতে পারেননি নির্যাতিতা। কে বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা জানাতে পারেননি তিনি।”

এই প্রসঙ্গে নির্ভয়ার মা আশাদেবী বলেন, ” আদালতের রায় খুশি হয়েছি আমি। মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ার পথে আরও এক ধাপ এগোলাম।” তবে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে গিয়ে অক্ষয় সিং এর আইনজীবী এপি সিংহ  গর্জে ওঠেন এবং ৩ সপ্তাহ সময় চান রাষ্ট্রপতির কাছে শেষ আবেদন জানানোর জন্য। কোনও রায়ের ক্ষেত্রে শেষ আবেদন জানানো যায় রাষ্ট্রপতির কাছে। কিন্তু এপি সিংহ এর এই আবেদনের বিরোধিতা করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহেতা। তিনি জানান যে, আদালতের রায়ে প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ হয়ে যাবার ৩ সপ্তাহ নয় মাত্র ৭ দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন জানাতে হয়। এখন দেখা যাক রাষ্ট্রপতি এই বিষয় কি রায় দেন। তার দিকে তাকিয়ে গোটা দেশ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...