সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

রাজ্যে মদের দাম কমানো নিয়ে চিন্তা ভাবনা শুরু

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ সুরা প্রেমীদের জন্য আগামি দিনে সুখবর হতে চলেছে । সাধারনভাবে এখন এক লিটার মদে কত পরিমাণ অ্যালকোহল আছে তার উপর কর চাপানো হয়। সেই ব্যবস্থা বদলে অ্যালকোহল-জল মিশ্রিত এক লিটার মদের উপরই করের সার্বিক হিসাব কষা হবে। এর ফলে মদের দাম অনেকটাই কমে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে ।

আবগারি দপ্তর খুচরো দামের(এমআরপি) উপর কর নেওয়ার ব্যবস্থা পরিবর্তন করে মদের উত্‍পাদন খরচের উপর (এক্সডিস্টিলারি প্রাইস)-এর উপর কর চালু করার চিন্তা ভাবনা করছে । যা হলে, কম দামের এবং ছোট বোতলের মদ কিনলে কর কম দিতে হবে। বেশি দামের নামকরা ব্র্যান্ডের বড় বোতল কিনলে কর দিতে হবে অনেক বেশি। এই নিয়ম চালু হলে অর্থাৎ নতুন কর ব্যবস্থা চালু হলে (যদি নবান্ন থেকে অনুমোদন পাওয়া যায়) দিশি মদের সঙ্গে কম দামি বিলিতি মদের ছোট বোতলের দামের খুব বেশি ফারাক থাকবে না বলে আবগারি কর্তারা দাবি করেছেন। এর জেরে রাজ্যে দিশির বাজারে বিলিতির আগমন হতে পারে বলে তাঁরা জানাচ্ছেন।

আবগারি কর্তারা যুক্তি দেখিয়েছেন, এর ফলে মদের বাজারে দু’তিনটি গোষ্ঠীর একচেটিয়া আধিপত্য বন্ধ করে প্রতিযোগিতা আনা সম্ভব হবে নতুন কর ব্যবস্থায় । নতুন ব্যবস্থায় অনেক নতুন সংস্থা এ রাজ্যে এসে মদের কারখানা খুলতে চাইবে। এক আবগারি কর্তার কথায়,”বিভিন্ন রাজ্যে স্থানীয় উত্‍পাদক ও স্থানীয় ব্র্যান্ডের অনেক বিলিতি মদের কারখানা রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে তা হয়নি। যে দু’তিনটি বৃহত্‍ সংস্থা বাজারের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে রেখেছে, বাজার ধরে রাখতে হলে তাদেরই দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। সরকার মদের দাম কমাতে চায় বলেই সংস্থাগুলির মধ্যে প্রতিযোগিতা এনে এই নীতি চালু করতে চাইছে।”

আবগারি কর্তারা জানাচ্ছেন, আগে এমআরপি’র মধ্যেই কর ধরা হত। এখন উত্‍পাদন খরচ ও লাভ রেখে সংস্থাগুলিকে মদের দাম গোপনে আবগারি দফতরকে জানাতে হবে। দফতর তার উপর কর ধার্য করবে। ফলে মদের উত্‍পাদকদের হাতেই কোন ব্র্যান্ডের মদের কী দাম হবে তা নির্ভর করছে। উল্লেখ্য করোনা পরিস্থিতিতে দেশ জুড়ে লকডাউন জারি করার সময় সমস্ত মদের দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয় । কিন্তু পরে  মদের উপর ৩০% বিক্রয় কর চাপানোর ফলে মদের বিক্রি কমে গিয়েছে। তাঁদের ধারণা, নতুন ব্যবস্থায় আবগারি রাজস্ব বছরে ১২ হাজার কোটি টাকা থেকে ১৮ -২০ হাজার কোটি টাকায় চলে যেতে পারে।

যদিও আবগারি দপ্তরের প্রস্তাবে এখনও পর্যন্ত বিলিতি মদ প্রস্তুতকারীরা সাড়া দেয়নি । এমনকি কেউ কেউ ব্যবসা গুটিয়ে অন্য রাজ্যে চলে যাবার হুমকি পর্যন্ত দিয়েছে । তবে আবগারি দপ্তরের আধিকারিকরা নবান্নের সাথে আলোচনা করতে চাইছে । এদিকে নবান্ন সুত্র থেকে জানা গেছে আবগারি দফতরের প্রস্তাব শীর্ষ আমলারা খতিয়ে দেখার পরে সিদ্ধান্ত হবে।

মন্তব্য
Loading...