দূনীর্তিমুক্ত প্রশাসন গড়ায় বদ্ধপরিকর বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক

0

সদ্য দায়িত্ব নেওয়া বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ বাগেরহাট জেলা প্রশাসন থাকবে দূর্নীতিমুক্ত করার জন্য বদ্ধ পরিকর। কোন মানুষ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার অভিযোগ না করতে পারেন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সে দিকে সতর্ক থাকার আহবান জানান। জেলা প্রশাসনের অবসরপ্রাপ্ত বিভিন্ন পর্যায়ের ১৭ জন কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। দূনীর্তিমুক্ত প্রশাসন গড়ার লক্ষ্যে তিনি আরও বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের সেবার মনভাব নিয়ে চাকুরী করতে হবে। মানুষকে সেবা দেওয়া তাদের ব্রত থাকবে। যারা অবসরে গেলেন তারাও আমাদের পাশে থাকবেন এবং জনসেবায় সহযোগিতা করার আহবান জানান তিনি।

 

অবসরপ্রাপ্তরাও যাতে ভবিষ্যতে দূর্নীতি মুক্ত প্রশাসন গড়ায় সহায়তা দেন এজন্য বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ শাহিন হোসেন, অবসরপ্রাপ্ত প্রসেস সার্ভার মোঃ মোস্তাব আলী, মোঃ মিজানুর রহমান প্রমুখ।

দূর্নীতি শুধুমাত্র আর্থিক অনিয়মেই নয় নৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকে কোন থেকে আদর্শের নৈতিক বা আধ্যাত্মিক অসাধুতা বা বিচ্যুতিকে নির্দেশ। বৃহৎ ক্ষেত্রে দূনীর্তি বলতে আমরা ঘুষ প্রদান, সম্পত্তির আত্মসাৎ এবং সরকারী ও রাজনৈতিক ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করা বুঝে থাকি। বাংলাদেশ সরকারের পাশাপাশি এই দূর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে বাগেরহাটের জেলা প্রশাসন।

 

বিভিন্ন সময় বাংলাদেশ ট্রান্সপারেন্সী ইন্ট্যান্যাশানানের সূচকে অবস্থান পরিবর্তন করলেও বাংলাদেশের অনেক দপ্তর দূর্নীতিগ্রস্থ। যার থেকে উত্তরনের জন্য বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক দূর্নীতি মুক্ত প্রশাসন গড়ায় সহায়তা চান।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...