ধর্মের দোহাই দিয়ে বলিউড কে বিদায় জানালেন “দঙ্গল  গার্ল”  জায়রা

বলিউডের ছবি ‘দঙ্গল’ খ্যাত অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম ৩০শে জুন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেন। সেখানে জায়রা লিখেছেন যে তিনি আর বলিউডের ছবিতে কাজ করতে চান না । তিনি বলিউডকে বিদায় জানাতে চান। কারণ তাঁর ধর্ম তাঁর কাছে আগে।

এর পরেই তৈরি হয় জল্পনা। অনেকেই এর প্রতিবাদ করেন অনেকে তাঁকে সমর্থনও করেন। জায়রার এই সিদ্ধান্তের পরে বলিউডে একটা চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে । বলিউডের অভিনেত্রী রবীনা ট্যান্ডন লিখেছেন, “যাচ্ছ, যাও । কিন্তু বলিউডের প্রতি অকৃতজ্ঞতা দেখিও না । নিজের এবং বলিউডের মর্যাদা কে খাটো না করে সম্মানজনক ভাবে বিদায় নাও”।

জায়রা ওয়াসিম এর বিদায় সম্পর্কে বলিউডের খ্যাতনামা অভিনেতা অনুপম খের ও মন্তব্য করেছেন । তিনি তার মতামত জানিয়ে বলেছেন, “ যখন প্রথম শুনেছিলাম জায়রা ধর্মের কথা বলে বলিউড থেকে বিদায় নিয়েছেন, আমি বিশ্বাস করিনি । বরং মনে হয়েছিল, ওকে জোর করা হয়েছে । বাধ্য করা হয়েছে । কিন্তু পরে মনে হলো, পুরোটাই জায়রার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত । তাই তাকে সম্মান জানানো উচিত । যদিও তার পরেও আমি ওর ওই সিদ্ধান্ত-এ দুঃখ পেয়েছি । অভিনেতা হিসেবে দুঃখ পেয়েছি । কারণ আমি জানি, জায়রা যে জায়গাটা বলিউডে পেয়েছিল, সেটুকু পাওয়ার জন্য আদ্যান্ত পরিশ্রম করে বহু অভিনয়ের ছাত্র-ছাত্রী । জায়রা সেটা সহজেই পেয়েছিল । আর তাই সেই জায়গাটা এভাবে ছেড়ে দেওয়ায় আমার খারাপ লেগেছে” ।

যাই হোক, ধর্মের দোহাই দিয়ে জায়রা ওয়াসিম যে বিদায় ঘোষণা করেছেন, তাতে জনমত দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেছে । কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন খুব সম্ভবত জায়রা ওয়াসিম এর অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে এবং সেখানে অন্য কেউ জায়রা ওয়াসিম এর একাউন্টে পোস্ট করেছে । অপরদিকে ধর্মের দোহাই দিয়ে জায়রার এই সিদ্ধান্তকে প্রশংসা করেছেন হিন্দু মহাসভা ।

অনেকের মনে সন্দেহ হয় জাইরা কি নিজে এই পোস্ট করেছেন? না কি অন্য কেউ ? যখন বলিউডে এই জল্পনা চলছে ঠিক তখনি আবার এক পোস্ট করলেন জাইরা, তাতে তিনি বলেন “আমি সবাইকে পরিস্কার করে জানাতে চাই, যে আমার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়নি। আমার সব সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট আমি নিজেই হ্যান্ডেল করছি। তাই দয়া করে আমার অ্যাকাউন্ট হ্যাকের ভুল খবর ছড়াবেন না। ধন্যবাদ”।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য