সংখ্যালঘু হিন্দু’দের সাথে মুসলিম সম্প্রদায়ের দাঙ্গার কারণে উত্তপ্ত পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: ফের একবার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা দেখা দিলো পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে। আর এরই জেরে সেখানকার তিনটি হিন্দু মন্দির সহ একটি বিদ্যালয় এবং বেশ কিছু বসতবাড়ি’তে লুঠতরাজ চালায় সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম সম্প্রদায়ের দাঙ্গাবাজ’রা। অবশেষে পুলিশ এসে হস্তক্ষেপ করায় অশান্তি নিয়ন্ত্রণে আসে। তা স্বত্বেও, এখনও পর্যন্ত থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে।

পাক সংবাদ মাধ্যমের সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, স্বয়ং নবির নামে কুৎসা রটানোর কারণে গত রবিবার সিন্ধ পাবলিক স্কুলের অধ্যক্ষ নোটন মালের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ জানান স্থানীয় আবদুল আজিজ রাজপুত নামে এক অভিভাবক। যেহেতু মুসলিম সম্প্রদায় তাদের নবি’কে পুণ্যাত্মা হিসেবে মান্য করে, সেকারণে নোটন মালের উক্তি তাদের ক্ষোভের কারণ হয়ে ওঠে। এরপর ঘোটকি থানায় ওই অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

এদিকে এই খবর ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ায় উত্তপ্ত হয়ে উঠতে থাকে পরিবেশ। তারপরই সংখ্যালঘু হিন্দুদের’কে নিশানা করেন সিন্ধ প্রদেশের মুসলিম সম্প্রদায়, এবং অবশেষে দাঙ্গা।

দীর্ঘক্ষণ এভাবে অশান্তি চলার পর অবশেষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্যে বিপুল পরিমাণ পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয় সিন্ধ প্রদেশে। মুসলিম বিক্ষভকারী’দের দাবি মেনে গ্রেফতার কড়া হয় ওই অধ্যক্ষ’কে, বর্তমানে নিরাপত্তার কারণে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে তাকে। এপ্রসঙ্গে পাক পুলিশ ইন্সপেক্টর জেনারেল জামিল আহমেদ জানিয়েছেন, “অভিযোগের ভিত্তিতে যথাযথ তদন্ত করা হবে। সত্য উদ্ঘাটনের পরে ন্যায়বিচার পাওয়া যাবে।”

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...