প্রবাসী ভারতীয়’দের সাথে দেখা হওয়ার পূর্বেই মামলা মোদী’র বিরুদ্ধে!

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: আজ অর্থাৎ ২২শে সেপ্টেম্বর তারিখে হিউস্টনে বসবাসকারী ভারতীয়রা ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী’কে অভ্যর্থনা দেওয়ার উদ্দেশ্যে ‘হাউডি মোদী’ নামক একটি মহাসভার আয়োজন করছেন। সূত্র অনুযায়ী, হিউস্ট‌নে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের মঞ্চে মোদী’র সাথে দেখা করতে আসতে পারেন তাঁর অন্তরঙ্গ বন্ধু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড‌ ট্রাম্প। দুই রাষ্ট্রপ্রধানের সাক্ষাতের বিষয় নিয়ে দু’দেশের মধ্যেই আলাপআলোচনা চলছে বলে জানা যাচ্ছে।

পরপর বেশ কয়েকটি দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক বেশ মজবুত হয়েছে। তা স্বত্বেও, বর্তমানে বাণিজ্যিক শুল্ক নিয়ে কিছুটা টানাপোড়েন চলছে দুই দেশের মধ্যে। সুতরাং ধরে নেওয়া হচ্ছে, এবারের সাক্ষাতে ভারত-মার্কি‌ন শুল্কের বিষয়টি আলোচনা প্রসঙ্গে তুলবেন নরেন্দ্র মোদী।

সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, আমেরিকায় মোট এক সপ্তাহ থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এপ্রসঙ্গে বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রীর সফরের মোট তিনটি ভাগ রয়েছে। সেগুলি যথাক্রমে – রাষ্ট্রপুঞ্জে ভাষণ, মার্কিন প্রতিনিধিদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক এবং অন্য একাধিক দেশের সঙ্গে বহুপাক্ষিক বৈঠক। সব মিলিয়ে মার্কিন সফরে মোট ৭৫ জনের সঙ্গে বৈঠক করার কথা আছে নরেন্দ্র মোদী’র।

২২শে সেপ্টেম্বর হিউস্টনের NRG স্টেডিয়ামে ৬০ হাজার ভারতীয় বংশোদ্ভূত দর্শক-শ্রোতার মুখোমুখি হতে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু তার আগেই মার্কিন মুলুকে মামলা ওঠে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী’র বিরুদ্ধে।

মোদী’র বিরুদ্ধে কাশ্মীরে মানবাধিকার ভঙ্গের অভিযোগ করেন দুই কাশ্মীরি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক। শুধু মোদী’ই নন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং ভারতীয় সেনাবাহিনীর লেফট্যনেন্ট জেনারেল কনওয়াল জিৎ সিং ধিলোঁ’র বিরুদ্ধেও কাশ্মীরে অমানবিক অত্যাচারের অভিযোগ তোলা হয়। একারণে বর্তমানে উদ্বিগ্ন অবস্থায় উদ্বিগ্ন দেখা যাচ্ছে নয়া দিল্লী’কে, এপ্রসঙ্গে ওয়াশিংটনের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য