নাগরিকত্ব বিল সংশোধনের বলি মাত্র ২ মাসের শিশু, বন্ধ করে দেওয়া হল নেট পরিষেবা

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ সবে মাত্র পাশ হল নাগরিকত্ব বিল । ইতিমধ্যে সারা দেশব্যাপী বিক্ষিপ্তভাবে শুরু হয়ে গিয়েছে তার প্রতিক্রিয়া । গতকাল মঙ্গলবার থেকেই উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে অসম ও ত্রিপুরা রাজ্যে । নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে মুলত রাস্তায় নেমেছে বাম সংগঠনগুলি । বিক্ষোভের মাঝে অসুস্থ ২ মাসের একটি শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে মারা গেছে বলে খবর ।

বেশ নাটকীয়তার মধ্যে সোমবার রাত বারোটার সময় লোক সভায় পাশ হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনের বিল । সর্ব সম্মতভাবে বিল পাশ না হলেও ভোটাভুটির ফলে দেখা গেছে পক্ষে ৩১১ টি এবং বিপক্ষে মাত্র ৮০ টি ভোট পড়েছে । শুধু ভারত নয়, প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানেও । বিভিন্ন মানুষ নানাভাবে এই বিলের পক্ষে এবং বিপক্ষে প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন । তবে মঙ্গলবার থেকেই বেশ উত্তেজিত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে ত্রিপুরা এবং অসমে । বিশেষ করে সেখানকার বাম ছাত্র সংগঠনগুলি রীতিমত রাস্তায় নেমেছে । সেখানে দেখা গেছে বিক্ষোভ মিছিলের পাশাপাশি  টায়ার জ্বালিয়ে,  বাহন  পুড়িয়ে চলছে চরম বিক্ষোভ।

বিশেষ করে ভারতের  ত্রিপুরা রাজ্যের পরিস্থিতি এতই খারাপ দিকে মোড় নিয়েছে যে, প্রশাসন কোন প্রকার রিস্ক না নিয়ে, উত্তেজনা যাতে দ্রুত না ছড়াতে পারে, তার জন্য সেখানে ৪৮ ঘণ্টার জন্য মোবাইল-ইন্টারনেট এবং এসএমএস পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে । গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ২ টার পর থেকে নেট পরিষেবা বন্ধ ত্রিপুরায় ।

লোকসভায় নাগরিকত্ব বিল পাশ হবার পরে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ জানিয়ে দেন বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান থেকে আগত অমুসলিমদের রেশন কার্ড ছাড়াই বা কোন নথি ছাড়াই নাগরিকত্ব দেওয়া হবে । ত্রিপুরার পাশাপাশি এর প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশী রাজ্য অসমেও উত্তেজনা ছড়িয়েছে ভালই ।  অসমে বন্ধ ডেকেছে  অসমের সমস্ত ছাত্র সংগঠন এবং নর্থ ইস্ট স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন (NESO) । সাধারন মানুষও ছাত্র সংগঠনের ডাকা বন্ধে সমর্থন করছে । বাম ছাত্র সংগঠনগুলির মধ্যে রয়েছে, SFI, DYFI, AISF, আইসা প্রভৃতি । কোথাও কোথাও CISF জওয়ানদের সাথে ছাত্র সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে ।

ত্রিপুরায় সাধারন মানুষ বিক্ষোভ মিছিল করে ত্রিপুরাকে নাগরিকত্ব বিলের বাইরে রাখার দাবি জানিয়ে । জানা গেছে বেশ কয়েক জায়গায় আগুন লাগিয়ে দেবার মত ঘটনা ঘটেছে । অসমের বেশ কিছু এলাকায় ইতিমধ্যেই ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে বলে খবর।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...