সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

চায়না খেলনা আসবে না তো কি হয়েছে ! ভারতেই তৈরি হচ্ছে ‘টয় সিটি’

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ  ভারতের একের পর এক পদক্ষেপ চাপে ফেলে দিচ্ছে চীনকে । একদিকে চীনা অ্যাপ ব্যান করা কিম্বা পণ্য আমদানি বন্ধ করা, অন্যদিকে সীমান্তে এবং সাগরে বাহু প্রদর্শন পরোক্ষভাবে যেন চীনকে হুশিয়ারি দিচ্ছে – “এবার সাবধান, আমরা তৈরি” । তবে খেলনা প্রেমীদের চায়না খেলনার দুঃখ থেকেই গিয়েছিল । এবার আত্মনির্ভর ভারত নিজেই সেই অভাব পুরন করতে তৈরি করছে ‘টয় সিটি’ ।

বিশ্ববাজারে খেলনার ক্ষেত্রে একের পর এক বাজার দখল করে রেখেছে চীন, সেখানে  এখনও চিনের একচ্ছত্র আধিপত্য। ভারতে আপাতত বন্ধ চায়না প্রোডাক্ট আমদানি । ফলে চায়না খেলনাও আসা বন্ধ । এবার সেই অভাব পুরন করতে গ্রেটার নয়ডায় তৈরি হচ্ছে টয় সিটি। যেখানে এবার থেকে প্রস্তুত করা হবে হরেক রকম খেলনা, যা এতদিন চিন থেকে আমদানি করত ভারত।

উত্তর প্রদেশের গ্রেটার নয়ডায় যমুনা এক্সপ্রেসওয়ে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অথরিটি তৈরি করছে এই টয় সিটি।এখানেই তৈরি হবে হরেক রকম খেলনা । ইতিমধ্যেই টয় সিটি তৈরি করতে গ্রেটার নয়ডার সেক্টর ৩৩ এ  ১০০ একর জায়গা নির্বাচন করেছে উত্তর প্রদেশ সরকার।আপাতত  এই ১০০ একর জমিতে প্রায় ৮০টি দোকান ও কারখানা তৈরি হবে বলে জানানো হয়েছে। যমুনা অথরিটির সিইও অরুণবীর সিং জানান দেশের খেলনা প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলিকে আহ্বান জানানো হয়েছে। এই টয় সিটি তৈরি হলে একদিকে যেমন প্রচুর কর্মসংস্থান তৈরি হবে পাশাপাশি, চিন থেকে বন্ধ হবে আমদানি । ফলে আর্থিক ক্ষতির মুখেও পড়বে বেজিং।

জানা গেছে,  ৭০টি অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা হবে এই টয় সিটিতে। এর জন্য প্রয়োজন ১লক্ষ ২০ হাজার স্কোয়ার মিটার এলাকা। এই ব্যবস্থাই এখন করছে উত্তরপ্রদেশ সরকার, যাতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে খেলনা প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি আসতে পারে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে, এখানে ৫০ হাজার মানুষ কাজ পাবেন। তবে ভবিষ্যত পরিকল্পনা রয়েছে প্রায় ৪ লক্ষ মানুষকে কাজ দেওয়ার।  এই টয় সিটি গড়ে উঠলে এটিই হবে ভারতের প্রথম টয় ক্লাস্টার। যা খেলনার বাজারে চিনের একচ্ছত্র আধিপত্য খর্ব করবে।

মন্তব্য
Loading...