সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

২১শের বিধানসভায় বিজেপির মুখ্যমন্ত্রীর মুখ তথাগত ! কি জানালেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয় !

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ একদিকে রাজ্যবিজেপিতে দিলীপ-মুকুলের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে অন্য দিকে মেঘালয়ের রাজ্যপালের দায়িত্ব ঝেড়ে ফেলে রাজ্য বিজেপিতে আসছেন তথাগত রায় । তথাগত রায়কে নিয়ে দলের মধ্যেই জল্পনা শুরু হয়েছিল ২১শের বিধানসভায় দলের পক্ষ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ হতে চলেছেন তিনি । এবার বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিলেন দল এই বিষয়ে ঠিক কি চিন্তা করছে ।

মেঘালয়ের রাজ্যপাল থাকা কালীন একদা রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথাগত রায় রাজ্যে রাজনীতিতে ফিরে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন । এরপর রাজ্যপালের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেবার পর থেকেই গেরুয়া বাহিনীর একাংশের মধ্যে আলোচনা শুরু হয় তিনিই নাকি একুশে বঙ্গ বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী। কিন্তু শনিবার সমস্ত জল্পনা উড়িয়ে দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি জানালেন, কাউকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে তুলে না ধরেই পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটে লড়াই করবে বিজেপি।

পরদিন রবিবার কৈলাস বিজয়বর্গীয় বিষয়টি আরও স্পষ্টভাবে জানাবার জন্য সাংবাদিক সম্মেলনে জানান,  “এখনও পর্যন্ত আমাদের যা সিদ্ধান্ত হয়েছে তা অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে আমরা কাউকে তুলে ধরব না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বেই আমরা নির্বাচনে লড়াই করে জিতব। জয়ের পর পরিষদীয় দল ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব আলোচনার মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে হবেন তা ঠিক করবে।”

গত ২০ শে মে তথাগত রায়ের রাজ্যপালের মেয়াদ শেষ হবার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারনে তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়নি । দিন কয়েক আগেই তথাগত ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিলেন, রাজভবন থেকে বেরিয়ে ফের রাজনীতিতে আসতে চান। ২০২১ নির্বাচনের আগে ফের রাজ্য রাজনীতিতে ফের সক্রিয় ভূমিকা নিতে চান। তথাগত রায় সরাসরি বাংলার রাজনীতিতে ফিরতে চাওয়ায় অনেকেই মনে করছেন, তিনি বিজেপির সম্ভাব্য মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থীর দৌড়ে নিজের দাবি প্রতিষ্ঠা করতে চাইছেন।

তথাগত রায় নিজেও বলেছেন, একুশে দল তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করলে তাঁর কোনও আপত্তি নেই। এই বক্তব্যের পর জল্পনা শুরু হয়ে যায় । রাজ্যে একদিকে শাসক দল তৃণমূল তার সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি করে চলেছে অন্য দিকে বিজেপির মুকুল রায় এবং দিলীপ ঘোষের  মধ্যে দলীয় মত বিরোধ আরও প্রকট হচ্ছে । এদিকে তথাগত রায়ের এই মন্তব্যের পর দলের মধ্যে সাংগঠনিক দুর্বলতা আরও প্রকাশ পেয়েছে । এই কারনেই কৈলাসবর্গীয় স্পষ্ট করে দেন দলের সিদ্ধান্ত ।

কৈলাশ বিজয়বর্গীয় সাফ জানিয়েছেন, “এখনও পর্যন্ত কারোর নাম ঠিক করা হয়েছে বলে আমার কাছে খবর নেই। বর্তমানে আমরা এই রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ২২০ থেকে ২৩০টি জেতার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছি। আশা করছি লোকসভা ভোটের মতো এবারও আমরা লক্ষ্যপূরণ করতে পারব। এক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে কাউকে সামনে রাখা না হলেও কোনও সমস্যা হবে না।”

মন্তব্য
Loading...