বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রীর বহনকারী বিমান কলকাতায় মৌমাছির আক্রমনে ৩ ঘন্টা বিলম্ব

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: গত ১৫ আগস্ট রবিবার ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ব বিমান সংস্থার এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট এ আই-৭৪৩ প্রায় তিন ঘন্টা দেরিতে ছাড়ে। এ বিমানে যাত্রী হিসাবে ছিলেন বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তার সাথে সফর সঙ্গী হিসাবে ছিলেন কলকাতার বাংলাদেশ হাইকমিশনের কয়েকজন কর্মকর্তাসহ ১৮ জনের একটি প্রতিনিধি দল। হাছান মাহামুদ তার সঙ্গীদের নিয়ে ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। বিমানে ১৩৬ জন যাত্রী ও কেবিন ক্রু নিয়ে কলকাতা থেকে আগরতলা যাবার পথে এ ঘটনা ঘটে।

বিমান ইন্ডিয়ার তথ্যমতে এয়ারবাস এ-৩১৯ বিমানটি যাত্রা শুরুর প্রস্তুতি নিতে যখন ট্যাক্সি-বে থেকে রানওয়ের দিকে যাচ্ছিল তখন এক ঝাঁক মৌমাছি এসে বিমানের সামনের দিকটি ঘিরে ধরে। পাইলটের আসনের সামনে বিমানের উইন্ডস্ক্রিনটিতে বসে পড়ে ওই মৌমাছির দল। পাইলটের নজরে বিষয়টি ধরা পড়ার পরই ওই জায়গাতেই বিমানটিকে দাঁড় করিয়ে দেন তিনি।

বিমান চালক মনে করেন মৌমাছির দল ইঞ্জিনের ভেতরে প্রবেশ করলে বিমানটির যেমন ক্ষতি হতে পারতো। ঠিক তেমনি বিমানের যাত্রীদের ক্ষেত্রেও সমস্যা হতে পারে। তবে ঐ সময় বিমানের ওয়াইপার ব্যবহার করেও কোনো কাজ হচ্ছিল না। পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি এসে তীব্রবেগে পানি ছিটিয়ে মৌমাছির দলকে তাড়ানো হয়।

প্রসঙ্গত তথ্যমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি ৯.৪০ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলেও সম্পূর্ণ বিপদমুক্ত করে দুপুর ১.৪০ মিনিটে আগরতলার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। মৌমাছি হামলায় বিমান বা যাত্রীদের কোনো ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি। জানা যায় মৌমাছি হামলা চালানোর আগে ঐ বিমানে কিছু যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা যায়।

উল্লেখ্য বিমানের তিন ঘন্টা দেরী হলেও তথ্যমন্ত্রী বা তার দলকে এয়ার ইন্ডিয়া থেকে কোনরকম আপ্যায়ন বা বিশ্রামের ব্যবস্থা করা হয়নি। যার ফলে বিমান ছাড়ার বিলম্বতা নিয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এক সময় নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...