সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

‘করোনা রুখতে ব্যর্থ হু’ অভিযোগ এনে সমস্ত সম্পর্ক ছেদের পথে আমেরিকা

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ গোটা বিশ্বে অতিমারি করোনা যেভাবে সংক্রমণ ছড়িয়েছে তাতে পরোক্ষভাবে হু কে দায়ি করল আমেরিকা । ‘করোনা রুখতে ব্যর্থ হু’  এমন অভিযোগ এনে  এবার সরকারিভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করার প্রক্রিয়া শুরু করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার সরকারের তরফে মার্কিন কংগ্রেসে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্র্যাম্প বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছিলেন । তাঁর দাবি ছিল একদিকে হু চীনের দোষ ঢাকছে, অন্য দিকে তাদের দায়িত্ব ঠিক মত পালন করছে না । গত মাসেই  প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ফের ঘোষণা করেছিলেন, চিনের হাতের ‘পুতুল’ WHO থেকে বেরিয়ে যাবে আমেরিকা। এবার সরকারীভাবে সেই পথে হাঁটতে চলেছে আমেরিকা । মঙ্গলবার মার্কিন কংগ্রেসে যে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে সেখান থেকে এই তথ্য উঠে এসেছে ।

এর আগে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ট্র্যাম্প যথেষ্ট বিরক্তি প্রকাশ করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু-এর দায়িত্ব পালন নিয়ে । মে মাসের শেষের দিকেই ট্রাম্প  ‘চিনের দালাল এবং হাতের পুতুল’ WHO’র সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করতে চায় আমেরিকা – এমনটাও জানিয়েছিলেন । সেখানে ট্র্যাম্পের অভিযোগ ছিল, WHO-এর নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি চিনের হাতে চলে গিয়েছে। তাছাড়া, করোনা রুখতে এবং করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে যে সংস্কারের প্রয়োজন, তা করে উঠতে পারেনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সেসময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা ওদের যে অতি প্রয়োজনীয় সংস্কারগুলি করতে বলেছিলাম, সেগুলি ওরা করতে পারেনি। সেজন্যই WHO’র সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করছি।’

ট্রাম্পের সেই ঘোষণা মতোই মঙ্গলবার WHO থেকে বেরনোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে আমেরিকা। আমেরিকা যদি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাথে সরকারীভাবে সমস্ত সম্পর্ক ছেদ করে তাহলে যথেষ্ট বিপাকে পড়বে হু । একদিকে বিশাল অংকের অনুদান বন্ধ হয়ে যাবে, অপর দিকে আমেরিকার মত একটা দেশ পিছিয়ে এলে বিশ্বে তাদের ভাবমূর্তি নষ্ট হবে ।

এদিকে আগে ট্র্যাম্প হু সম্পর্কে যে মন্তব্য করেছিলেন তাতে আন্তর্জাতিক মহলে সমালোচিত হয়েছিলেন ।  খোদ রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব তাঁকে রাজনীতি ভুলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সহযোগিতা করতে অনুরোধও  করেছিলেন ।তবে এবারও ট্র্যাম্প নিজের দেশেও সমালোচনার মুখে পড়েছেন । ডেমোক্র্যাটরা তাঁর সিদ্ধান্তকে ‘খামখেয়ালি’ বলে আখ্যায়িত করেছে । তাদের  পক্ষ থেকে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বিডেন বললেন, ‘এই সিদ্ধান্তের ফলে আমেরিকাবাসীর কোনও লাভ হবে না। উলটে আমারা একা হয়ে যাব। আমেরিকানরা তখনই নিরাপদ থাকবে যখন বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যসুরক্ষার এই লড়াইয়ে তাঁরা শামিল হবে। আমি নির্বাচনে জিতে আসার পর প্রথম দিনই ফের বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় যোগদান করব।’

মন্তব্য
Loading...