সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

মালদায় লকডাউনে নিয়ম ভাঙ্গার অভিযোগ, পুলিশের হাতে আটক শতাধিক, লাঠিচার্জ

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ আবার সেই মালদা । করোনা মোকাবিলায় কড়া লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ফের আইন অমান্য করতে দেখা গেল মালদায় । তবে পুলিশও যেন তৈরি হয়ে ছিল । মালদহ জেলা পুলিশ দিনের শুরু থেকেই লকডাউন সফল করতে রাস্তায় নামে । লকডাউন অমান্যকারী হিসাবে পুলিশের হাতে আটক শতাধিক ।

রাজ্য জুড়ে যেভাবে করোনা সংক্রমণ খুব দ্রুত হারে বাড়ছে, তাতে করোনা নিয়ন্ত্রনে কড়া লকডাউনের দাওয়াই ছাড়া উপায় ছিল না রাজ্যসরকারের । সেই মতাবেক প্রতিটি জেলা পুলিশ দপ্তরে ছিল কড়া নির্দেশ । শনিবার ছিল মালদহে সাপ্তাহিক লকডাউনের দ্বিতীয় দিন । এদিনও মালদায় নিয়ম ভাঙ্গতে দেখা গেছে । লকডাউন সফল করতে শনিবার সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে নিয়ম ভাঙায় এদিন একশো জনের বেশি লোককে আটক করা হয়। গ্রেফতার করা হয়েছে এক জনকে।

মালদায় এর আগে পরিযায়ী শ্রমিকদের থেকে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছিল । সম্প্রতি সেখানে করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার বেশ উদ্বেগজনক পরিস্থিতি তৈরি করেছে ।পুলিশ কড়া হাতে লকডাউন সফল করতে রাস্তায় নামলেও কিছু ক্ষেত্রে অশান্তির খবর পাওয়া গেছে । এদিন  ইংরেজবাজার শহরের বালুচরে অযথা বাড়ির বাইরে ভিড় করে থাকা লোকজনকে সরাতে গেলে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। পুলিশের সঙ্গে বেশ কয়েক জন বচসায় জড়িয়ে পড়ে। পরে তা হাতাহাতিতে পরিণত হয়। অভিযোগ, এর পরে পুলিশ ব্যাপক মারধর করে স্থানীয় বাসিন্দাদের। পুলিশ জানিয়েছে বাইরে থাকা লোকজনকে বাড়িতে ঢোকার কথা বলা হলে তাঁরা পুলিশের সঙ্গে অভব্য ব্যবহার করেন।

এছাড়াও লকডাউন ঠিকমত মানার জন্য রাস্তায় রাস্তায় টহল দেয় মালদহ জেলা পুলিশ । অবাধ্য মানুষকে ঘরে ঢোকাতে শহরের বেশ কয়েকটি জায়গায় লাঠিচার্জ করতে হয়েছে পুলিশ। তার পাশাপাশি লকডাউন ভেঙে যারা রাস্তায় বেরিয়ে ছিল তাদের আটক করে। মালদহ শহরের রথবাড়ি এলাকায় এদিন পথে নেমেছিল অটো ও টোটো। পুলিশ সেই গাড়িগুলিকেও আটক করে। শহরের সবচেয়ে বড় দুটি বাজার চিত্তরঞ্জন মার্কেট ও নেতাজি মার্কেটে পুলিশ অভিযান করে।

শনিবার সকাল থেকেই  মালদহ শহরের রথবাড়ি, মকদমপুর, বাঁধ রোড সহ বিভিন্ন এলাকায় লাঠি হাতে অভিযান চালাতে দেখা যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশকে। বন্ধ ছিল শহর ও গ্রামাঞ্চলের সমস্ত বাজার ও হাট। দোকানপাটও সম্পূর্ণ ভাবে বন্ধ ছিল। গ্রামীণ এলাকাতেও পুলিশের কড়া নজরদারি ছিল। বিভিন্ন জায়গায় নাকা চেকিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়।চাঁচল মহকুমা, গাজল, হবিবপুর এবং কালিয়াচকেও এদিন সক্রিয় ছিল পুলিশ। বিভিন্ন জায়গায় ড্রোন দিয়ে নজরদারি চালানো হয়।

এদিকে রাজ্য সরকারের সর্বশেষ রিপোর্ট অনুযায়ী মালদহ জেলায় দিন দিন করোনা পরিস্থিতি খারাপ থেকে আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে । মালদহে এই পর্যন্ত আক্রান্ত ১৯৯৩ জন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় মালদহ জেলায় ২২ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে নয় জনের। জেলার ইংরেজবাজার পুরসভা, মালদহ পুরসভা, কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লক এবং কালিয়াচক ১ নম্বর ব্লকের আলিপুর ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বড় অংশকে ‘ব্রড বেসড কন্টেনমেন্ট জোন’ হিসাবে ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

মন্তব্য
Loading...