উত্তর কোরিয়ায় চীন ফেরত এক ব্যাক্তিকে প্রকাশ্যে গুলি করে মারা হল করোনাভাইরাসের ভয়ে

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে এক ব্যাক্তিকে প্রকাশ্যে গুলি করে মারল কিম প্রশাসন । জানা গেছে সম্প্রতি ওই ব্যাক্তি চীন থেকে উত্তর কোরিয়ায় এসেছিল এবং সন্দেহ করা হয়েছিল যে, তার শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব রয়েছে ।

এমনিতেই উত্তর কোরিয়ায় প্রশাসন চলে কিমের কথায় । সেখানে কিমের কথাই আইন । করোনাভাইরাসের কারনে চীন থেকে আসা কোন বিমান উত্তর কোরিয়ায় প্রবেশ করতে পারবে না বলে ঘোষণা করা হয়েছে । এমনকি উত্তর কোরিয়ার কোন নাগরিক চীন থেকে দেশে ফিরলেও তাদের জন্য রয়েছে কঠিন ব্যবস্থা । বাইরে থেকে আসা নাগরিকদের আইসোলেশন ক্যাম্পে অন্তত ৩০ দিন থাকতে হবে । কিন্তু জানা গেছে, নিহত ব্যাক্তি সরকারের এই নিয়ম ভঙ্গ করে আইসোলেশন ক্যাম্পে থাকেনি । এই অপরাধের জন্য তাকে প্রকাশ্যে গুলি খেয়ে প্রান দিতে হল ।

উত্তর কোরিয়ায় চীন থেকে আসা সমস্ত নাগরিকদের আইসোলেশন ক্যাম্পে রাখা হচ্ছিল । রেডক্রস যে নিষেধাজ্ঞা উত্তর কোরিয়ায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রক্ষা করার জন্য জারি করেছিল, সেটি তুলে নেবার জন্য আবেদন করা হয়েছে । জানা গেছে, চীন থেকে আগত উত্তর করিয়ার নিহত নাগরিক আইসোলেশন ক্যাম্পে না থেকে  তিনি সার্বজনীন স্থলে গিয়ে সেই নিয়মের লঙ্ঘন করেন। ফলে প্রান দিয়ে তাকে সেই মুল্য চোকাতে হল ।

উত্তর কোরিয়ায় এখনও পর্যন্ত ঠিক কতজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে সেই খবর নেই । তবে জানা গেছে, সেখানে নিয়ম করা হয়েছে, যাদের শরীরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার লক্ষন দেখা গেছে, তাদের অন্তত ৩০ দিন আইসোলেশন ক্যাম্পে থাকতে হবে । সমস্ত সরকারি সংস্থান আর উত্তর কোরিয়ায় থাকা বিদেশীদের জন্য এই নিয়ম চালু করা হয়েছে ।

বর্তমানে উত্তর কোরিয়ায় সরকার  চীন থেকে তাঁদের দেশে যাওয়া সমস্ত বিমানে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এছাড়াও সাবধানতার জন্য বাইরে থাকে প্রত্যেক বিদেশীর জন্য অন্তত সাত দিনের জন্য আইসোলেশনে থাকা বাধ্যতামূলক ঘোষণা করা হয়েছে । এমন কি  আন্তর্জাতিক পর্যটনে নিষেধাজ্ঞা জারি করার সাথে সাথে তাঁরা নিজেদের আন্তর্জাতিক সীমাও বন্ধ করে দিয়েছে।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More