সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে মসনদে বসবেন মহারাজ-বিসিসি আই-এর সভাপতি নির্বাচিত হলেন সৌরভ

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ আবার একটা বড় মাইল স্টোন টপকালেন আমাদের দাদা ।  ফের ছক্কা হাঁকালেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় । সিএবি সভাপতি থেকে ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থার সর্বোচ্চ আসনে নির্বাচিত হলেন সকলের প্রিয় সৌরভ গাঙ্গুলি ।  নির্বাচিত হয়ে সিসিআই সভাপতির চেয়ার দখল করলেন প্রিন্স অফ ক্যালকাটা । জগমোহন ডালমিয়ার পরে ফের বাংলা থেকে বিসিসি আই -এর সভাপতির পদ অলংকৃত করছেন মহারাজা । সেই সাথে মহারাজের ঝুলিতে যুক্ত হল আরও একটা উজ্জ্বল পালক । 

ভারতীয় ক্রিকেট টিমের একজন অধিনায়ক হিসাবে এই প্রথমবার সৌরভই বোর্ড সভাপতি হলেন । জানা গেছে,  আগামী ২৩ অক্টোবর সভাপতির দায়িত্ব বুঝে নেমেন ‘প্রিন্স অফ ক্যালকাটা । অথচ রবিবার সকাল বেলায় একদমই বোঝা যায়নি সৌরভ বি সিসি আই-এর সভাপতি হবেন । এমন কি বিকালের পড়ে খবর চাউর হয়ে যায়, কোনও আশাই নেই মহারাজের।এমনও শোনা যায়, সভাপতি তো দূরের কথা, সচিবও হতে পারবেন না দাদা। কিন্তু একেবারে, শেষ মুহূর্তে সব কিছুর ছক বাঞ্চাল করে দিয়ে মহারাজা অর্জন করলেন সভাপতির পদ ।

কিন্তু মধ্য রাতে যেন ম্যাচের রঙ বদলে গেল। ৩০টি রাজ্য সংস্থার সর্বসম্মত সমর্থন চলে আসে দাদার দিকে। এক বছরের কম সময়ের জন্য বিসিসিআই সভাপতির দায়িত্ব সামলাবেন সৌরভ। হাতে ১০-১১ মাস সময়। তারপরেই লোধা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী তিন বছরের কুলিং অফ পিরিয়ডে চলে যেতে হবে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। সেই সময় ক্রিকেট প্রশাসনের কোনও ভূমিকাতেই থাকতে পারবেন না তিনি । সৌরভ ভক্ত্ রা আশা করছেন, এই অল্প সময়েই মহারাজ যে একটা ছাপ ফেলে যাবেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে সেটা প্রায় নিশ্চিত ।

সভাপতি নির্বাচনের মহানাটক নিয়ে সৌরভ জানিয়েছেন, “আমি জানতামই না। আপনারা যখন বিকেলে আমায় জিজ্ঞেস করলেন, আমি তখন বলেছিলাম ব্রিজেশই হচ্ছে। তারপর রাতে আমি জানতে পারি আমিই দায়িত্ব পেয়েছে।” তবে নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি যে খুশি তা পরিষ্কার জানিয়ে দেন দাদা। বলেন, “এটা বড় দায়িত্ব। আমি চাই সফল ভাবে সেটা সামলাতে।”  তুন প্যানেলে সৌরভ সভাপতি হওয়ার পাশাপাশি সেক্রেটারি হচ্ছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের ছেলে জয় শাহ এবং কোষাধ্যক্ষ হচ্ছেন অনুরাগ ঠাকুরের ভাই অরুণ ধুমল।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...