বিদ্যুৎ ব্যবহার না করেই ৯ লক্ষ টাকা বিদ্যুৎ বিল

0

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় ২০০৪ সালে ৩১ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যেগ নেয়া হয়। ভূমি জটিলতা কাটিয়ে দশ বছর পর বাছিরপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ প্রক্রিয়া শুরু হয়। প্রায় ২২ কোটি ব্যয়ে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ২০১৮ সালে হস্তান্তর হয়।

বিদ্যুৎ ব্যবহার না করেই প্রায় ৯লাখ টাকার বিদ্যুৎ বিল নিয়ে বিপাকে পড়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়। ডিসেম্বরে স্বাস্থ্য বিভাগ কমপ্লেক্স বুঝে নিলেও নভেম্বর মাসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিকট এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত এক সাথে ৭ মাসে ৮ লাখ ৭১ হাজার ৯০৪ টাকার বিদ্যুৎ বিল আসে।

৫০ শয্যা বিশিষ্ট জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স উদ্বোধনের ১১ মাস অতিবাহিত হলেও জরুরী বিভাগ ও অন্ত:বিভাগ চালু হয়নি। তাছাড়া চালকসহ অ্যাম্বুলেন্স সরবরাহ করা হলেও রেজিস্ট্রেশন না হওয়ায় দীর্ঘ ১০ মাস অ্যাম্বুলেন্স সেবা থেকে বঞ্চিত ছিল উপজেলাবাসী।

৩১ শয্যা উন্নীত হওয়া ৫০ শয্যার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মো. নাসিম এমপি সেটি উদ্বোধন করেন। চিকিৎসকরা প্রতিদিন বহির্বিভাগে রোগী দেখলেও প্রয়োজনীয় মালামাল ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর অভাবে জরুরী বিভাগ ও অন্ত বিভাগ এখনও চালু হচ্ছে না। তাছাড়া স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী উদ্বোধনী সভায় ঘোষণার এক মাসের মধ্যেই চালকসহ অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করা হয়। কিন্তু গাড়ীর রেজিস্ট্রেশন না হওয়ায় দীর্ঘ ১০ মাস অ্যাম্বুলেন্স সেবা থেকে উপজেলাবাসী বঞ্চিত ছিল।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...