সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম না বেশী কিভাবে জানবেন ?

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ দেশ জুড়ে ভয়াবহ আকার ধারন করেছে করোনা পরিস্থিতি । ভ্যাক্সিন কবে সাধারন মানুষের নাগালে আসবে সেই নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারছে না । বিশেষজ্ঞরা বারবার পরামর্শ দিচ্ছেন সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলার সাথে সাথে নিজের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য । কিন্তু আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম না বেশী কিভাবে জানবেন ? সাধারনভাবে কিছু লক্ষন থেকে বোঝা যায় মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কি অবস্থায় আছে ।

সাধারনভাবে দেখা যায় যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি তারা শরীরিকভাবে বেশ সবল থাকেন। তবে যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল তারা অল্পতেই কাহিল হয়ে পড়েন। অনেক সময় তাদের সেল, টিস্যু ও অন্যান্য অঙ্গ প্রত্যক্ষ ঠিক মতো কাজ করে না।বিশেষজ্ঞদের মতে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হলে নানা ধরনের অসুস্থতা দেখা দেয়।

যদি আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় তাহলে নিচের লক্ষনগুলি দেখা দেবে –

১) হাত ঠান্ডা হয়ে যাওয়া : যদি রক্তনালী স্ফীত হয় তাহলে হাত-পায়ের আঙুল, কান ও নাক গরম রাখা শক্ত হতে পারে। তখন শরীরের এসব স্থানে চামড়া ফ্যাকাশে, সাদা, কখনও নীল হয়ে যেতে পারে। প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হলে এমন সমস্যা দেখা দিতে পারে। আবার যখন রক্ত সরবরাহ ঠিক থাকে তখন ত্বক আগের অবস্থায় ফিরে আসে।রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেলে হাত পা ঠাণ্ডা হবার মত ঘটনা প্রায়ই হবে ।

হাত ঠান্ডা হয়ে যাওয়া

২) পায়খানার সমস্যা : কারও যদি ঘন ঘন ডায়রিয়া হয় কিংবা তা ২ থেকে ৪ সপ্তাহ স্থায়ী থাকে তাহলে বুঝতে হবে তার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে পড়েছে, হজম পদ্ধতিতে গোলমাল হয়েছে। কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হলে সেটাও শরীরের দুর্বল প্রতিরোধ ব্যবস্থার লক্ষণ প্রকাশ করে।

৩) চোখের শুস্কতা : অটোইমিউন সমস্যা হলে তা শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থার ওপর প্রভাব ফেলে। অটোইমিউন সমস্যা হলে চোখের শুষ্কতা দেখা দেয়। ফলে চোখে কিছু পড়েছে এমন অনুভূত হয়। কখনও আবার চোখে ব্যথা, চোখ লাল হওয়া, দেখতে সমস্যা হওয়া এসব উপসর্গ দেখা দিতে পারে। এমনকি ঘুমানোর সময় সমস্যা দেখা দেয় ।

চোখের শুস্কতা

৪) ঘনঘন সর্দি কাশি হওয়া : কারও যদি ঘনঘন সর্দি-কাশি হয় তাহলে বুঝতে হবে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে পড়েছে। আবার কারও যদি মাঝে মাঝেই ভাইরাল ইনফেকশন হয়, তাহলেও বুঝতে হবে তার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল।

৫) মাথা ঘোরা : সাধারণত ফ্লুতে আক্রান্ত হলে শরীর ক্লান্ত অনুভূত হয়। তবে যদি প্রায়ই মাথা ঘোরা, ক্লান্ত লাগে তাহলেও বুঝতে হবে তার শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হয়ে পড়েছে।এছাড়া  অতিরিক্ত মাথা ব্যাথা হলে সেটাও কোনো অসুখের লক্ষণ প্রকাশ করে। সাধারণত শরীরে কোনও ধরনের প্রদাহ হলে এমন সমস্যা দেখা দেয়।

 মাথা ঘোরা

৬) অতিরিক্ত চুল পড়া : কখনও কখনও শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হলে তা চুলের ওপর আঘাত করে। তখন অনেক বেশি মাত্রায় চুল পড়ে।

৭) র‌্যাশ : ত্বকে ঘন ঘন র‌্যাশ ওঠা, চুলকানি হলেও শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হওয়ার লক্ষণ প্রকাশ করে।

৮) ঘন ঘন সংক্রমণ : কারও যদি ঘন ঘন সংক্রমণ হয় এবং বারবার তাকে অ্যান্টিবায়োটিক খেতে হয় তাহলে বুঝতে হবে শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হয়েছে।

৯) অনিদ্রাঃ রাতে ঠিক মত ঘুম না আসাও শারীরিক দুর্বলতার কারন হতে পারে ।

১০) অরুচিঃ অনেক সময় ঠিক মত ক্ষিদে না পাওয়া কিম্বা খাবারে রুচি না থাকা শারীরিক দুর্বলতার লক্ষন ।

মন্তব্য
Loading...