সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

বাংলাদেশের হিন্দুরা নৃশংসতার শিকার; বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি আওয়ামীলীগ সম্পাদকের

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ দেশের মধ্যে বিক্ষোভের আগুনের মাঝে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে আবারও প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হল । এর আগে বাংলাদেশ থেকে ভারতে আসা অবৈধ নাগরিকদের তালিকা চাইলেও এবার বাংলাদেশের সংখ্যা লঘু হিন্দুদের নিয়ে আরও বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন,  দেশের সড়ক যোগাযোগমন্ত্রী তথা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

নাগরিকত্ব বিল লোকসভা ও রাজ্যসভায় বেশ নাটকীয়তার মধ্যে পাশ হবার পর রাষ্ট্রপতি শিল মোহর দিয়ে আইনে রুপান্ততিত করেন নয়া নাগরিকত্ব আইন । নয়া আইনে বলা হয়েছিল, ভারতের প্রতিবেশী দেশ আফগানিস্তান, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের সংখ্যালঘু অমুসলিম সম্প্রদায়কে শরণার্থী হিসাবে ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদান করা হবে । তার পর থেকেই দেশ জুড়ে চলে বিক্ষোভ আর প্রতিবাদ । প্রায় সমস্ত বিরোধী দল রাস্তায় নেমে বিরোধিতা করে । এই অবস্থায় বাংলাদেশের শাসক দল আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের স্বীকারোক্তি অনেক তাৎপর্য বহন করবে সে বিষয়ে সন্দেহ নেই ।

বাংলাদেশের সংখ্যা লঘু হিন্দুদের নিয়ে  দেশের সড়ক যোগাযোগমন্ত্রী তথা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের   বিস্ফোরক মন্তব্য ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী এবং বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানের সংখ্যা লঘু হিন্দুদের  নিয়ে যে মন্তব্য করেছিলেন,  তা  সমর্থন করে ।  ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যেটা বলেছেন বাংলাদেশের বাস্তবে সেটাই সত্যি। ঢাকায় সচিবালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, “২০০১ সাল থেকে যে মাইনরিটি পারসিউকিউশন এদেশে হয়েছে, এটা কেবলমাত্র ৭১-এর বর্বরতার সঙ্গেই তুলনীয়। কাজেই এখানে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার কোনো উপায় নেই।”

দু দিন আগে বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা গওহর রিজভী সম্প্রতি ভারতে এসে বলেছেন যে সংখ্যালঘু কেউ বাংলাদেশ থেকে এসেছে প্রমাণ হলে তাদের ফেরত আনা হবে। এবার আওয়ামীলীগের ওবায়দুল কাদের  বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল বি এন পি কে উদ্দেশ্য করে বলেছেন  ‘বিএনপি যতই সত্যকে চাপা দিতে চাক, আপনারা জানেন, সাংবাদিকরাও জানেন, তখন কিভাবে মাইনরিটির ওপর অত্যাচার হয়েছে, বিশেষ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর।’  ওই অবস্থায় সংখ্যালঘুদের দেশ থেকে পালানোটাই স্বাভাবিক ছিল। অনেকেই জীবনের নিরাপত্তার জন্য সেদিন পালিয়েছিল। তিনি আরও বলেন, ”মির্জা ফখরুল যতই সাফাই গান না কেন, যে সত্য দিবালোকের মতো সত্য, তা চাপা দিয়ে কারও কোনো লাভ নেই। সত্যের বন্যা অপ্রতিরোধ্য। এটা প্রকাশ হবেই।” তবে  ওবায়দুল কাদেরকে প্রশ্ন করা হয়, তখন ভয়ভীতির কারণে যারা ভারতে গেছেন তাদের কি ফিরিয়ে নেওয়া হবে? জবাবে তিনি বলেন, “তারা আসতে চাইলে ফিরিয়ে নেব”।

মন্তব্য
Loading...