দেশ জুড়ে পেট্রোলের চাহিদা তলানিতে, কাজ হারানোর ভয় লক্ষ কর্মীর

দাম কমছে পেট্রোল ডিজেলের। আর্থিক প্যাকেজের আবেদন সরকারের কাছে। Petrol diesel prices are falling. Apply for financial package to the government.

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ করোনা মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। শুধু মাত্র জরুরি পরিষেবা ছাড়া সব বন্ধ সব কিছু। বন্ধ সমস্ত পরিবহণ। ফলে টান দেখা দিয়েছে পেট্রোল পাম্প গুলিতে। টানা পতন হচ্ছে পেট্রোল এবং ডিজেলের দামের। ফলে বিপদে পড়েছে মালিকরা।

পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম কমে যাওয়াতে কম টাকায় পাম্প খোলা এবং কর্মীদের বেতন দিতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। আগে যেখানে প্রতিদিন গড়ে ১৭০ লিটার তেল বিক্রি হত সেখানে এখন ১৫ লিটারের মত বিক্রি হয়। এরফলে AIPDA সরকারের কাছে আর্থিক প্যাকেজের দাবী করে। যেহেতু মালিকরা জ্বালানির ওপর একটা মারজিন পায় সেহেতু জোট কম বিক্রি হবে তত লোকসান হবে তাদের।

মধ্যবিত্তদের চাহিদা অনুযায়ী গত এক মাস যাবত কমেই চলেছে পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম। চলতি মাসের শুরু থেকেই ১ টাকারও বেশী দাম কমে গিয়েছে পেট্রোলের। তবে এই মুহূর্তে গত ১৫ দিন যাবত একই দাম রয়েছে পেট্রোল এবং ডিজেলের।  সারা দেশের মধ্যে পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম রাজধানী দিল্লিতে সব সময়ের জন্য কম থাকে, তবে আজ কলকাতায় পেট্রোলের দাম লিটার প্রতি ৭৩.৩০ টাকা। যেখানে দিল্লীতে প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম আজ ৬৯.৫৯ টাকা এবং মুম্বইয়ে ৭৬.৩১ টাকা। চেন্নাইয়ে পেট্রোলের দাম ৭২.২৮ টাকা।

অন্যদিকে আজ কলকাতায় ডিজেলের দাম ৬৫.৬২ টাকা। চেন্নাইতে আজ ডিজেলের দাম ৬৫.৭১ টাকা প্রতি লিটারে। মুম্বইতে আজ ডিজেলের দাম ৬৬.২১ টাকা। দিল্লীতে আজ ডিজেলের দাম রয়েছে ৬২.২৯ টাকা। যদিও গতবছর বাজেট পেশের সময় ডিজেল ও পেট্রোলের দাম থেকে অতিরিক্ত শুল্ক আদায়ের ওঠা বলা হয়েছিল যে কারণে লিটার পিছু ১ পয়সা বা ২ পয়সা করে দাম বাড়ানোর কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু দাম বাড়ানোর পর কমে গিয়েছিল চাহিদা।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...