সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

রাজ্যে কি গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু ! কোন জেলায় করোনার কি হাল এক নজরে

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ গোটা রাজ্যে প্রতিদিন স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বুলেটিন থেকে প্রকাশিত করোনা আপডেট দেখে যে কেউ শিউরে উঠতে পারেন । প্রশাসনের অতি সক্রিয়তা দেখে অনেকেই বলতে শুরু করেছেন তবে কি বাংলায় করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হতে চলেছে ! এক নজরে দেখে নেওয়া যাক রাজ্যের কোন জেলায় করোনা পরিস্থিতির চিত্র ।

রাজ্যে সবার প্রথম করোনায় আক্রান্ত হবার খবর এসেছিল কলকাতা থেকে । কলকাতা এখনও করোনা সংক্রমণের নিরিখে প্রথম স্থানে আছে । তবে পিছিয়ে নেই অন্যান্য জেলা । কলকাতার পাশে অন্যান্য জেলাগুলিতেও হু হু করে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার । গত সাত দিনের পরিসংখ্যান থেকে দেখা যাচ্ছে, শহর কলকাতায় প্রতিদিন গড়ে ৬০০-৭০০ করে নতুন করোনা সংক্রমণ হচ্ছে ।

শুক্রবার স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিন অনুযায়ী বাংলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২২১৬। এর মধ্যে শুধু কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৯৯ জন, গতকালের তুলনায় কলকাতার সংক্রমণ আংশিক কম হলেও আক্রান্তের সংখ্যায় দিন দিন উদ্বেগ আরও বাড়ছে। কলকাতায় মৃত্যুও বেড়েছে আশঙ্কাজনক হারে। এদিন করোনার হানায় মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের।

একনজরে কলকাতার করোনা পরিসংখ্যান রবিবার কলকাতায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৮২৬ জন। এদিন ৬৯৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন শহরে। এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৬৫৮ জনের। এদিন মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের। এখন পর্যন্ত করোনা মুক্ত হয়েছেন ১০১৮৩ জন। এখনও সক্রিয় করোনা আক্রান্ত ৫৯৮৫ জন।

উত্তর ২৪ পরগনা ও হাওড়া উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় এখান পর্যন্ত আক্রান্ত ১১৩৪২ জন। এদিন আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬৭ জন। মৃত্যু হয়েছে মোট ২৫৬ জনের। এদিন মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। হাওড়ায় আক্রান্ত ৬২৫৬। এদিন আক্রান্ত হয়েছেন ১৮৯ জন। আর এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ১৬২ জন। এদিন মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের।

কলকাতা, হাওড়া, এবং উত্তর ২৪ পরগনা ছাড়াও, অন্যান্য জেলায় করোনা সংক্রমণ, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১৪৩ জন বেড়ে হয়েছে ৪১১৮। হুগলিতে ৭৪ জন বেড়ে আক্রান্ত ২৬০০ জন। মালদহে ৫২ জন বেড়ে আক্রান্ত ১৯৯৩। দার্জিলিংয়েও ৮৯ জন বেড়ে আক্রান্ত ১৬২১ জন। এছাড়া আলিপুরদুয়ারে ২৩৬, কোচবিহারে ৫০৭, কালিম্পংয়ে ৭৪, জলপাইগুড়ি ১০১১, উত্তর দিনাজপুর ৮২৭, দক্ষিণ দিনাজপুর ৯৩৫, মুর্শিদাবাদ ৫৯৭, নদিয়া ৭২১, বীরভূম ৪০৫, পুরুলিয়া ১৬১, বাঁকুড়া ৪৪৩, ঝাড়গ্রাম ২৮, পশ্চিম মেদিনীপুর ৯১২, পূর্ব মেদিনীপুর ১১৬৮, পূর্ব বর্ধমান ৫৫৪, পশ্চিম বর্ধমান ৫৭২, আর অন্য রাজ্যের বাসিন্দা ৬৬ জন আক্রান্ত হন।

মন্তব্য
Loading...