সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

আবহাওয়া খবর; রাতে নামবে পারদ, আবারও বৃষ্টির পূর্বাভাস; সতর্কতা জারি হাওয়া অফিসের

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ আজ দিনের শেষে রাত নামার সাথে সাথে হু হু করে নামবে পারদ, তাপমাত্রা ১০শের নীচে নেমে যাবার কথা ঘোষণা করল আলিপুএ আবহাওয়া দপ্তর । পাশাপাশি কলকাতাসহ দক্ষিন বঙ্গের বেশ কিছু জেলায় অকাল বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা । তবে রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলির তাপমাত্রা নেমে যাবার সম্ভবনা সবচেয়ে বেশী ।

এই সময় বৃষ্টির সম্ভবনা থাকে না । কিন্তু পৌষের অকাল বৃষ্টিতে গতকাল থেকে আচমকা তাপমাত্রা নেমে গেছে প্রায় তিন ডিগ্রী । আজ থেকেই মানুষ শীতের কামড় টের পাচ্ছেন বেশ ভাল করেই । এরই মাঝে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানিয়ে দেওয়া হল ফের বৃষ্টিপাতের কথা । সেই সাথে আগামী দুই দিন অর্থাৎ ২৮ ও ২৯ শে ডিসেম্বর আরও কমে যাবে তাপমাত্রা । পাশাপাশি আগামী ৪৮ ঘণ্টা দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চলের একাধিক জেলায় সকালের দিকে ঘন কুয়াশার সম্ভাবনাও রয়েছে।

তাপমাত্রা কমার পাশাপাশি  কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলাতে বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। অবশ্য আলিপুর আবহাওয়া অফিস থেকে আগেই জানানো হয়েছিল এই অকাল বৃষ্টি সম্পর্কে । হাওয়া অফিস জানিয়েছে, বছরের শুরুর দিন ১ লা জানুয়ারি থেকে ৩ জানুয়ারি পর্যন্ত বৃষ্টিতে ভিজবে শহর কলকাতা। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এই অকাল বৃষ্টিতে এবছরে শীত রেকর্ড করতে পারে ।

আইএমডি-র ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “নতুন বছরের পয়লা দিন থেকেই বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়। পয়লা জানুয়ারি সন্ধের পর থেকেই বৃষ্টি শুরু হতে পারে। ২ তারিখ বাড়বে বৃষ্টির পরিমাণ। সেদিন দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চলের কয়েকটি জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বাকি জেলাগুলোয় মাঝারি বৃষ্টিপাত হবে। ৩ তারিখ সকাল পর্যন্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ যে হারে ঠাণ্ডা ও কাল বৃষ্টি হয়েছে, তাতে আগামী কাল আকাশ পরিষ্কার হবার পাশাপাশি জাঁকিয়ে ঠাণ্ডা পড়ার কথা । বৃষ্টিপাতের কারন হিসাবে সঞ্জীববাবুর বক্তব্য,  ওয়েস্টালির সঙ্গে ইস্টারলির সংঘর্ষের ফলেই এই বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়। তিনি বলেছেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বর উত্তর-পূর্ব ভারতে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে উত্তর-পশ্চিম হিমালয় থেকে ধেয়ে আসবে শুষ্ক-শীতল হাওয়া। সেই সময়েই সমতল থেকে উপরের দিকে বইবে উষ্ণ-জলীয় বাষ্প পূর্ণ বায়ু। এই দুই বায়ুর মুখোমুখি সংঘর্ষের ফলেই তৈরি হবে মেঘ। এবং অতিরিক্ত জলীয় বাষ্পের কারণে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে বছরের প্রথম তিনদিন।

অকাল বৃষ্টির জন্য আচমকা পারদের এই পতন । এরপর উত্তরে হাওয়া ঢুকতে শুরু করলে পারদ কোথায় গিয়ে থামে তা নিয়ে শঙ্কিত আবহাওয়াবিদরা ।  সাব-হিমালয়ান অঞ্চলের উপরে থাকা পাঁচটি জেলা জলপাইগুড়ি, মালদা, উত্তর দিনাজপুর, কোচবিহার এবং কালিম্পঙে দিনের বেলা ‘কোল্ড ডে’ রাতের বেলা ‘কোল্ড ওয়েভ’ অর্থাৎ শৈত্যপ্রবাহের সতর্করা জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সাধারণত কোনও দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার থেকে কম হলে সেই দিনকে বলে ‘কোল্ড ডে’। ২৮ এবং ২৯ ডিসেম্বর এই আবহাওয়া থাকবে উত্তরবঙ্গে। সঙ্গে শিলাবৃষ্টিরও সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গের পাঁচ জেলায়। একই ছবি দেখা যাবে দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোতেও। বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বীরভূম-সহ দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চলের একাধিক জেলায় শৈত্যপ্রবাহ এবং ‘কোল্ড ডে’-র সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

মন্তব্য
Loading...