সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

আজ পাঁচটা থেকে চালু কড়া লকডাউন, প্রাথমিকভাবে চালু থাকবে ৭ দিনের জন্য

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ গোটা রাজ্যের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনা এবং কলকাতায় যে হারে গত কয়েকদিন ধরে করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার বাড়ছে তাতে রাজ্য সরকার কন্টেনমেন্ট জোন ভাগ করে আজ বিকাল ৫ টা থেকেই চালু করছে কড়া লকডাউন । রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানা গেছে প্রাথমিকভাবে কন্টেনমেন্ট জোনগুলিতে এই কড়ালকডাউন বলবৎ থাকবে সাত দিনের জন্য ।

করোনা মোকাবিলায় গোটা দেশ জুড়ে চলতি বছরের মার্চ মাসে কেন্দ্রীয় সরকার লকডাউন ঘোষণা করে । কিন্তু গত মাস থেকে সাধারন মানুষের দুর্দশার কথা ভেবে লকডাউনে শিথিলতা এনে আনলক ঘোষণা করা হয় । আনলক পর্যায়ে খুলে দেওয়া হয় প্রায় সব কিছু । কিন্তু তাঁরপর থেকেই করোনার উল্লেখযোগ্যভাবে সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার বৃদ্ধি পেতে শুরু করে , বিশেষ করে কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় করোনার প্রকোপ ধরা পড়েছে সব থেকে বেশি ।

করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্ত রোখার লক্ষ্যে আজ, বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা থেকে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় নতুন করে যে নিয়ন্ত্রণবিধি চালু হচ্ছে, প্রাথমিক ভাবে তার মেয়াদ সাত দিন। কোন কোন এলাকায় এই নিয়ন্ত্রণ কার্যকর হবে, সেই কন্টেনমেন্ট জ়োনের জেলাভিত্তিক কিছু তালিকা বুধবার প্রকাশ করা হয়েছে। এই সব এলাকায় কড়া হাতে নিয়ন্ত্রণ কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন। তবে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই নিয়ন্ত্রণে মানুষকে ‘ঘরবন্দি’ হতে হবে না। যদিও প্রশাসনের একাংশের মতে, সংক্রমণ ঠেকাতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় সব ধরনের গতিবিধিতে পুরোপুরি রাশ টানা হবে।

কন্টেনমেন্ট জোনগুলিতে নয়া নিয়ম চালু করেছে রাজ্য সরকার । নতুন কন্টেনমেন্ট বিধি তৈরি করে কড়াভাবে করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে প্রশাসন ।  নতুন নির্দেশিত কন্টেনমেন্ট এলাকায় সরকারি-বেসরকারি সব অফিস, জরুরি নয় এমন পরিষেবা, সমাবেশ, পরিবহণ, বাজার, শিল্প-বাণিজ্য বন্ধ থাকবে। সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দাদের অফিসে না-গেলেও চলবে। ওই সব এলাকায় ঢোকা-বেরোনোর উপরে থাকবে কড়া নিয়ন্ত্রণ। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস যতটা সম্ভব হোম ডেলিভারির ব্যবস্থা করবে স্থানীয় প্রশাসন।

তবে আশার কথা নতুন ব্যবস্থায় কন্টেনমেন্ট জ়োনের সংখ্যা কমেছে শহরে। মঙ্গলবার কলকাতা পুলিশ এলাকায় কন্টেনমেন্ট জ়োন ছিল ২৮টি। বুধবার তা হয়েছে ২৫। ওই সব এলাকায় কঠোর লকডাউন-নিয়ন্ত্রণ কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছেন সিপি অনুজ শর্মা।

মন্তব্য
Loading...