সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

প্রয়াত হলেন সঙ্গীত শিল্পী সুবীর নন্দী, শোকস্তব্ধ ভক্তেরা

অসংখ্য ভক্তকে ছেড়ে চলে গেলেন বিখ্যাত ও জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী সুবীর নন্দী। আজ ভোর ৪ টে নাগাদ সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতাল এমআইসিইউতে তাঁর মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালীন তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। দীর্ঘদিন ধরেই ডায়াবেটিস রোগে ভুগছিলেন তিনি। এর পাশাপাশি হার্টে বাইপাস অপারেশন হয়েছিলো তাঁর, সাথে কিডনিতেও সমস্যা ছিল।

গত ৫ই মে তিনি প্রথম হৃদরোগে আক্রান্ত হন, এরপর ৬ই মে সকালে আবার তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হন। এর ফলে তাঁর শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি ঘটে। অতঃপর আজ সকালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। চিকিৎসক সামন্তলাল সেন জানান, এর আগেও তাঁর একবার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। তখন তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থা জটিল হয়ে পড়ে। এরপর ৩০ শে এপ্রিল তাকে সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

Subir_nandy

দীর্ঘ ৪০ বছরের সঙ্গীত জীবনে তাঁর অবদান তুলনাহীন। বিভিন্ন পুরস্কার সহ ৫ বার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। ১৯৫৩ সালের ১৯ নভেম্বর হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার নন্দীপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত সঙ্গীত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। গানের পাশাপাশি চাকরিও করেছেন ব্যাংকে।

সুবীর নন্দীর কণ্ঠে কিছু বিখ্যাত গান হল  ‘দিন যায় কথা থাকে’, ‘আমার এ দুটি চোখ পাথর তো নয়’, ‘পৃথিবীতে প্রেম বলে কিছু নেই’, ‘হাজার মনের কাছে প্রশ্ন রেখে’, ‘বন্ধু হতে চেয়ে তোমার’, ‘কতো যে তোমাকে বেসেছি ভালো’, ‘পাহাড়ের কান্না দেখে’, ‘একটা ছিল সোনার কইন্যা’, ‘ও আমার উড়াল পঙ্খীরে’।

মন্তব্য
Loading...